‘মাদরাসার শিক্ষক এমন হবে কখনও ভাবিনি’

সাভারের আশুলিয়ায় এক শিশু শিক্ষার্থীকে (১১) বলা'ৎকারের অভিযোগে মা'দরাসার প্রধান শিক্ষক মাসুদুর রহমানকে (৩৪) আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় উত্তেজিত এলাকাবাসী মা'দরাসাটির সামনে অবস্থান করছেন। সোমবার রাত ৮টার দিকে আশুলিয়ার মধ্য চারাবাগ এলাকার ম'দিনাতুল উলুম হিফজুল কুরআন মডেল মা'দরাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক মাসুদুর রহমান সিরাজগঞ্জ জে’লার সদর থা'না এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে। তিনি মধ্য চারাবাগ এলাকার ম'দিনাতুল উলুম হিফজুল কুরআন মডেল মা'দরাসায় প্রায় দুই বছর ধরে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করছিলেন।

ভু'ক্তভোগীর শিক্ষার্থীর মা বলেন, আমর'া পোশাক কারখানায় চাকরি করি। তাই মা'দরাসার আবাসিকে রেখে ছেলেকে লেখাপড়া করানোর সিদ্ধান্ত নেই। দুই বছর ধরে আমার সন্তান এই মা'দরাসায় লেখাপড়া করছিল।

কিন্তু মা'দরাসার শিক্ষক এমন হবে কখনও ভাবিনি। এ ধরনের শিক্ষকের জন্য সন্তানকে কেউ মা'দরাসায় পড়াবে না। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

ভু'ক্তভোগীর মায়ের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ওই মা'দরাসার আবাসিকে রেখে পোশাক শ্রমিক নারী তার সন্তানকে লেখাপড়া করাচ্ছিলেন। প্রতি স'প্ত াহের ন্যায় গতকাল ২১ ফেব্রুয়ারি ছেলেকে দেখতে যান ভু'ক্তভোগীর মা।

এ সময় শিশু শিক্ষার্থী কেঁদে কেঁদে তার মাকে মা'দরাসায় পড়বে না বলে জানায়। পরে ঘটনা শুনে আজ থা'নায় অভিযোগ দায়ের করলে ওই মা'দরাসা থেকে অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থা'নার উপ-পরিদর্শক (এস আই) আব্দুল জলিল বলেন, ভু'ক্তভোগী শিক্ষার্থীর মায়ের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে ওই মা'দরাসা থেকে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে আটক করা হয়েছে।