মুম্বাইয়ে মসজিদ থেকে করোনা রোগীদের চিকিৎসাব্যবস্থা

ভারতের অনেক অঙ্গরাজ্যে করোনা সংক্রমণের হারা ক্রমাগত বাড়ছে। করোনা রোগীদের চিকিৎসা দিতে হাসপাতালে তীব্র সংকট দেখা দেয়। এমন কঠিন সময়ে অনেক মসজিদ ও মা'দরাসায় করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া শুরু হয়।

মুম্বাই শহরের তাকওয়া মসজিদ থেকে করোনা রোগীদের জন্য বিনা মূল্যে অক্সিজেন সরবরাহ করা হচ্ছে। রমজান মাসে মানবসেবার প্রেরণা থেকে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়। মসজিদের ইমাম মুফতি মুহাম্ম'দ আশরাফ বলেন, ‘আমর'া প্রতিদিন মসজিদ থেকে ২০টির বেশি সিলিন্ডার রোগীদের বাড়িতে বিনা মূল্যে সরবরা করি। শহরের কোনো হাসপাতালের বেড না থাকায় বাড়িতে রোগীদের অক্সিজেনের দেওয়া হচ্ছে।’

মুম্বাই মসজিদের পক্ষ থেকে করোনা রোগীদের বাড়িতে চিকিৎসা দিতে ২০ চিকিৎসকের একটি দল গঠন করা হয়। ৩০ জন স্বেচ্ছাসেবকও নিয়োগ করা হয়। তাঁরা পালাক্রমে করোনা রোগীদের সেবা করছে।

ভারতের গু'জরাট প্রদেশের ভাদোদারা শহরের সরকার পরিচালিত দারুল উলুম মা'দরাসার ক্যাম্পাসে কভিড রোগীদের অক্সিজেন ও আইসোলেশনের ব্যবস্থা করা হয়।

মা'দরাসার পরিচালক মুফতি আরিফ আব্বাস বলেন, ‘করোনা সংক্রমণের হার ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। হাসপাতালে রোগীদের বেডের চাহিদাও তীব্র আকার ধারণ করে। তাই আমর'া চিকিৎসা সুবিধা দেওয়ার উদ্যোগ নিই। আমর'া মানুষের সেবা করতে চাই।’

‌‘গত স'প্ত াহ থেকে চিকিৎসা সুবিধা বাড়ানোর চে'ষ্টা চলছে। বর্তমানে আমর'া মা'দরাসার ক্যাম্পাসে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ রোগীদের চিকিৎসা দিতে পারছি।’ বেড ও অক্সিজেন সা'প্লাই নিশ্চিত করতে কিছু হেলপ লাইন নাম্বার চালু করা হয়।

জাহাঙ্গীরাপুরা মসজিদ কমিটির সদস্য ইরফান শেখ বলেন, ‘ভাদোদারা শহরের একটি মসজিদও করোনা রোগীদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়। ৫০ বেডের রোগীদের চিকিৎসা দিতে আমর'া ইতিমধ্যে চিকিৎসকদের নিয়োগ দিয়েছি এবং অক্সিজেনের ব্যবস্থা করেছি। মূলত চারপাশের করুণ পরিস্থিতির কারণে আমর'া এ ব্যবস্থা গ্রহণ করি।’

নিউ দিল্লি ভিত্তিক সংগঠন অল ইন্ডিয়া ইমাম অর্গানাইজেশনের প্রধান মাওলানা ওমর' আহম'দ ইলিয়াসি বলেন, ‘বর্তমানের পরিস্থিতিতে জরুরি ভিত্তিতে এগিয়ে আসা জরুরি। মুসলিম'দের পরিচালিত মা'দরাসা, স্কুল ও কমিউনিটি সেন্টারগু'লো সংকটময় মুহূর্তে কাজে লাগানো যেতে পারে। আমা'দের সবাইকে একসঙ্গে করোনা প্রতিরোধে এগিয়ে আসতে হবে। বর্তমান করোনা পরিস্থিতি অত্যন্ত নাজুক।’ সূত্র : খালিজ টাইমস।