মানুষ কোন পর্যায়ে গেলে আ’ত্মহ’ত্যা করে সেটা অনুভব করেছি: সাকিব

করোনাভাইরা’সের মধ্যে আইপিএল খেলতে ভারত সফরে গিয়ে মুম্বাইয়ে একটি হোটেলে কোয়ারেন্টিনে আছেন কলকাতা নাইট রাইডা’র্সের তারকা অলরাউ’ন্ডার সাকিব আল হাসান। দুয়েক দিনের মধ্যেই অনুশীলনে ফেরার কথা রয়েছে তার।

মু’ম্বাই থেকে দেশের একৎকারে বৃহস্পতিটি গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাবার সাকিব বলেন, কোয়ারেন্টিনের আজকে পঞ্চম দিন। ঘরব'ন্দি থেকে একবার প্রচণ্ড রকম ডি’প্রে’শড হয়ে গিয়েছিলাম। তখন মনে হয়েছে— লোকে যে আত্মহ'ত্যা করে কেন করে, সেটি বুঝতে পেরেছি।

সাকিব আরও বলেন, আগে যে কোয়ারে’ন্টিনে থেকেছি, তখন তো ঘর থেকে বের হয়েছি, টিমমেটরা একসঙ্গে ছিলাম, এর-ওর রুমে গেছি, ওরা এসেছে। একটা ফ্লো’রে সবাই ছিলাম। মিশতে পেরেছি। এখানে একদম রুম কো’য়ারে’ন্টিন, কারও সঙ্গে দেখা করা, কথা বলার উপায় নেই। দরজার বাইরে খাবার দিয়ে যায়। আমার এ রকম অভিজ্ঞ’তা ছিল না আগে।

আইপিএলে ৬৩ ম্যাচ খেলে ৫৯ উইকেট শি'কার করা সাকিব আরও বলেন, সবসময়ই ব্যস্ততায় সময় কাটে আমার। সেদিক থেকে কোয়ারে’ন্টিনের দিনগুলো খুব কঠিন হয়ে গিয়েছিল। হঠাৎ এ রকম অবস্থায় পড়ে… পুরো জে’লখানার স্বাদ পেলাম। মানুষ ডি’প্রে’শনের কোন পর্যায়ে গেলে আত্মহ'ত্যা করতে চায় বা করে, সেটি অনুভব করেছি।

জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক আরও বলেন, তবে এখন ওভারকাম করে ফেলেছি। এখন প্ল্যা’ন করে ফেলেছি যে, কী কী করা যায়। কোয়ারে’ন্টিনের সময় শেষ হলে শুরুতে যাব জিম ও সুইমিং করতে। এটার পর 'বিকালে ট্রে’নিং। আর 'বিকালে ছাড়া পেলে সরাসরি ট্রে’নিংয়ে যাব।