ঝু’ল’ন্ত লাশের নিচে পড়ে ছিল গ’র্ভপা’ত হওয়া ৮ মাসের নবজা’তক

ঘরে ফাঁ'’সে ঝুলছিল প্রেমের সম্প’র্কে’র জে’রে পরিবারের সবাইকে ফাঁ'’কি দিয়ে বিয়ে করা সীমা'র লা’শ। আর লা’শের নিচে পড়ে ছিল আট' মাসের গ’র্ভপা’তের নবজাতকটি। ঢাকার উত্তর বাড্ডা এলাকায় ভাড়া বাসা ভাটারা থা'না পুলিশ সীমা'র ও ভূ’মি’ষ্ঠ নবজাতকের লা’শ উ’'দ্ধা’র করে।

ফেনীর সোনাগাজীতে গত বছরের ৪ মে ১০ রমজান পরিবারের সবাইকে ফাঁ'’কি দিয়ে প্রেমের সম্প’র্কের জেরে পাশের এলাকার আকাশের সঙ্গে ঘর বেঁ’ধেছিলেন সীমা। আর চলতি বছরের ২৯ মে ১৬ রমজান লা’শ হয়ে বাবার বাড়ি আসলেন তিনি।সীমা আট' মাসের অ’ন্তঃস’ত্ত্বা ছিলেন। তার ঝু’ল’ন্ত লা’শের নি’চেই পড়ে ছিল গ’র্ভের সন্তানের লা’শ। ময়নাত’দন্ত শেষে শুক্রবার রাতে গ্রামের বাড়িতে সীমা'র লা’শ দা'ফন করা হয়।

সীমা সোনাগাজী উপজে’লার চরমজলিশপুর ইউনিয়নের চরগোপ'ালগাঁও গ্রামের ইতালি প্রবাসী মো.ইব্রাহীমের মেয়ে। তার স্বামী বগাদানা ইউনিয়নের মৃ'’ত ওবায়দুল হকের ছোট ছেলে আবদুল্লাহ আল মাহমুদ আকাশ। তাকে বৃহস্পতিবার রাতেই পুলিশ গ্রে’ফতা’র করে কা’রাগা’রে পাঠিয়েছে।

নি’হ’তের পরিবার জানায়, এক বছর আগে আকাশের সাথে প্রেমের সম্প’র্কের জে’র ধরে পা’লিয়ে বিয়ে করে জয়নাল হাজারী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী সীমা। এরপর থেকে তারা ঢাকা ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন ভাড়া বাসায় থাকতো।

বৃহস্পতিবার রাতে আকাশের মোবাইল থেকে সীমা'র বাবাকে ফোন করে জানানো হয় তার মেয়ে ‘আ”ত্মহ”'ত্যা’ করেছে। ঢাকার উত্তর বাড্ডা এলাকায় ভাড়া বাসায় তার ম’রদে’হ আছে।

খবর পেয়ে সীমা'র বাবা ইব্রাহীম ওই বাসায় গিয়ে জানতে পারেন ভাটরা থা'নার পুলিশ তার কন্যা ও ভূ’মি’ষ্ঠ নবজাতকে লা’শ উ’'দ্ধা’র করে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়’নাতদ’ন্ত শেষে শুক্রবার রাতে গ্রামের বাড়িতে ‘দা’ফন করা হয়।

সীমা'র বাবা মো. ইব্রাহীম বলেন, আমা'র মেয়ে ‘আ”ত্ম’হ”'ত্যা’ করেনি। তাকে পরিকল্পিতভাবে ”হ”'ত্যা’ করা হয়েছে। এ বি'ষয়ে আমি ঢাকার ভাটারা থা'নায় আকাশকে আ’সা’মি করে একটি মাম’লা দা’য়ের করেছি। আমি আমা'র মেয়ে ‘হ”'ত্যা’র বি’চার চাই।