প্রতিবন্ধী চালক দেখে অটোরিকশা ছাড়ল পুলিশ

রাজধানীর চানখারপুল মোড়ের মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার থেকে তিনজন নারী যাত্রী নিয়ে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশাকে নামতে দেখে দৌড়ে এসে থামার সিগন্যাল দেন চেকপোস্টে কর্তব্যরত পুলিশ।

কাছে গিয়ে ধমক দিয়ে তাকে নামতে বলেন সেই পুলিশ সদস্য। এরপর দরজা খুলে বেরিয়ে আসেন চালক, যিনি শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী।

ভয়ার্ত কণ্ঠে তিনি বলেন, ‘স্যার, আমি একজন প্রতিবন্ধী মানুষ। পেটের দায়ে বের হইছি। রোগী নিয়ে ল্যাব এইডে যাইতাছি’। চালকের শারীরিক অবস্থা দেখে অটোরিকশায় রোগী নিয়ে যাওয়ার অনুমিত দেয় পুলিশ।

করোনার সংক্রমণ রোধে চলমান সপ্তাহব্যাপী লকডাউনের তৃতীয় দিনে আজ শনিবার (৩ জুলাই) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

সেলিম হোসেন নামের ওই চালক জানান, তিনি নারায়ণগঞ্জের জালকুড়ি এলাকায় থাকেন। সংসার চালাতে গত ১৮ বছর ধরে তিনি প্রতিবন্ধিতা নিয়েই নারায়ণগঞ্জ ও ঢাকা শহরে যানবাহন চালান। ঋণ করে এ সিএনজিচালিত অটোরিকশাটি কিনেছেন। লকডাউন চলাকালেও তিনি ঘরে বসে থাকেন না। অটোরিকশা নিয়ে বের হয়ে পড়েন।

লকডাউনে সকল প্রকার যানবাহন চালানো নিষেধ একথা বললে তিনি বলেন, ‘গাড়ি না চালাইলে খাওন দিবো কেডা? তাছাড়া আমি তো একজন পঙ্গু মানুষ। গাড়ি নিয়ে বাইর হইলে আয় রোজগার হয়। বিভিন্ন স্পটে থামালেও শারীরিক অবস্থা দেখে ছেড়ে দেয় পুলিশ।’