মিষ্টি খেতে না চাওয়ায় স্ত্রীর চুলের মুঠি ধরে খাওয়ালেন বর

মিষ্টি খেতে চাননি কনে। তাই চুলের মুঠি ধরে হবু স্ত্রী’র মুখে মিষ্টি গুঁজে দিল বর। মিষ্টি খাওয়ানোর সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে। বরের সেই হিংসাত্মক আচরণে রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয়েছেন নেটিজেনরা।

সেই ভিডিওতে দেখা যায়, বিয়ে করতে আসার পর বরকে মিষ্টি খাইয়ে দিচ্ছেন কনে। তাকে দেখেই বোঝা যাচ্ছে যে রীতিমতো লজ্জা পাচ্ছেন। মুখ তুলেও সেভাবে চাইছিলেন না। তারইমধ্যে কনেকে মিষ্টি খাওয়াতে যায় বর। কিন্তু মুখ ঘুরিয়ে নেন কনে। তাতেই প্রচণ্ড রাগ ওঠে বরের।

এ সময় চুলের মুঠি ধরে কনের মুখে মিষ্টি গুঁজে দেয়। স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছিল যে কনে মুখ খুলতে চাইছেন না। হবু স্ত্রীর মুখে মিষ্টি যাওয়ার পর তবেই চুলের মুঠি ছাড়ে বর।

আশ্চর্যজনকভাবে বরের পাশে এক মহিলা দাঁড়িয়েছিলেন। তিনি কোনো শব্দও করেননি। অন্য কেউও সেখানে এগিয়েও আসেননি। তার পর এমন হাবভাব করে বর নড়েচড়ে দাঁড়ায়, দেখে মনে হচ্ছিল যেন যুদ্ধ জয় করেছে।

এদিকে ‘অফিসিয়াল-নিরানঞ্জনএম৮৭’ নামে একটি ইনস্টগ্রামে অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করা সেই ভিডিও রীতিমতো ভাইরাল হয়েছে। তিনদিনে প্রচুর মানুষ সেই ভিডিওতে কমেন্টও করেছে। বরের সেই হিংসাত্মক আচরণের তীব্র সমালোচনা করেছেন নেটিজেনরা।

এক নেটিজেন লিখেছেন, ‘বিয়ের দিন এভাবে কনের সঙ্গে ব্যবহার করছেন বর – লজ্জাজনক! ভগবান জানেন, কীভাবে বাকি জীবন তার সঙ্গে ব্যবহার করা হবে। এরকম ব্যবহারের সময় কেউ আটকালও না।’

অপর আরেক নেটিজেন লিখেছেন, ‘এটা মোটেও মজাদার কিছু নয়। এটা হেনস্থা। এরপর কী হতে চলেছে, তা এটা থেকেই ইঙ্গিত মিলছে। আমি বিশ্বাস করতে পারছি না যে পরিবার এরকম হতে দিল। এগুলি মজার বা আনন্দের নয়, এগুলি দুঃখজনক।’

অপর এক নেটিজেন বলেন, ‘ওই লোকটার বিরুদ্ধে কেন পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হচ্ছে না?’

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস