বিয়ের পর জানতে পারেন জামাই ‘চোর’! এবার লুটে নিলেন শ্বশুরবাড়ি

পরিবারের সদস্যদের অচেতন করে শ্বশুরবাড়ির সর্বস্ব লুটের অ'ভিযোগ উঠেছে এক মেয়ে জামাইয়ের বিরুদ্ধে। বুধবার দিবাগত রাতে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের গন্ধরপুর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অ'ভিযুক্ত স্বামীর বিরুদ্ধে তার স্ত্রী নাজমা বেগম থা'নায় লিখিত অ'ভিযোগ করেছেন। অ'ভিযোগ আমলে নিয়ে তদ'ন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

জানা যায়, হাজীগঞ্জ উপজে’লার ৫নম্বর সদর ইউনিয়নের সুদিয়া গ্রামের খাজে আহম্মেদ বিয়ে করেন একই উপজে’লার গন্ধব্যপুর ইউনিয়নের ফকির মোহাম্ম'দ বেপারির মেয়ে নাজমা বেগমকে। বিয়ের পর তারা মেয়ে জামাইয়ের চুরি পেশা সম্পর্কে জানতে পারেন।

অ'ভিযুক্ত খাজে আহম্মেদের শ্যালক শামীম জানান, আমার মা, বোন (অ'ভিযুক্তের স্ত্রী) এবং আমার মেয়ে শামীমা আক্তার ঘু'মাচ্ছিল। গভীর রাতে খাজে আহম্মেদ আমা'দের ঘরে ঢুকে নে'শাজাতীয় দ্রব্য তাদের নাক-মুখে দিয়ে অচেতন করে। এই ফাঁ'কে ঘরে থাকা টাকা, স্বর্ণালঙ্কার, মোবাইলসহ দামি জিনিসপত্র মালামাল লুটে নেন তিনি।

এ ব্যাপারে আজ বৃহস্পতিবার অ'ভিযুক্তের স্ত্রী নাজমা বেগম বাদী হয়ে হাজীগঞ্জ থা'নায় একটি অ'ভিযোগ দায়ের করেছেন। নাজমা জানান, খাজে আহমেদ চুরির দায়ে আগে কয়েক বার জে’লে খেটেছেন। বি'ষয়টি আমর'া বিয়ের পরে জানতে পেরেছি। তিনি এখন আমার পরিবারের ওপর হাত দিলো।

হাজীগঞ্জ থা'নায় মাম'লার তদ'ন্তকারী কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন জানান, অ'ভিযোগ পেয়েছি। তদ'ন্ত শেষে সত্যতা পেলে নিয়মিত মাম'লা হবে।