সুসজ্জিত গাড়িতে চেপে ‘রাজকীয়’ অবসরে গেলেন পুলিশ কনস্টেবল

দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অনেক পুলিশ বিতর্কের জন্ম দিচ্ছে৷ গুটিকয়েক পুলিশ সদস্যের নীতিভ্রষ্টতার কারণে এমন অভিযোগ পুরো পুলিশ বাহিনীর উপর এসে পড়ে৷ তবে এর পেছনে নাগরিক সমাজের ভূমিকাও কম দায়ী নয়।

নতুন খবর হচ্ছে, সুসজ্জিত গাড়িতে চেপে অবসরে গেলেন গাইবান্ধার পুলিশ কনস্টেবল ফরিদুল হক। দীর্ঘ ৪০ বছরের চাকরিজীবনের পরিসমাপ্তি ঘটিয়ে শেষ কর্মস্থল গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ থানা থেকে রোববার দুপুরে তাকে বিদায়ী সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

ফরিদুল হক ১৯৮১ সালে পুলিশের কনস্টেবল পদে যোগদান করেন। তিনি দীর্ঘ ৪০ বছর দেশের বিভিন্ন থানায় দক্ষতা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন।তার চাকরিজীবনের শেষ মুহূর্তকে স্মরণীয় করতে বিশেষ আয়োজন করেছিল শেষ কর্মস্থল গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ থানার সহকর্মীরা।

রোববার দুপুরে তাকে বিদায়ী সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এসময় তার হাতে ফুলেল শুভেচ্ছা ও উপহার সামগ্রী তুলে দেন সহকর্মীরা। এরপর সুসজ্জিত পুলিশের গাড়িতে করে ফরিদুল হককে গাইবান্ধার সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের বাড়িতে পাঠানো হয়।

সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহিল জামান জানান, গত এক বছর ধরে সুন্দরগঞ্জ থানায় কর্মরত ছিলেন ফরিদুল হক। চাকরির শেষ দিন তার সম্মানে দুপুরে থানায় কর্মরত সকল পুলিশ সদস্য একসঙ্গে খাবার খায়।

এরপর তাকে বিদায়ী শুভেচ্ছা জানানোসহ উপহার সামগ্রী তুলে দেয়া হয়। পরে গাড়িতে করে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয় ফরিদুল হককে। প্রবীণ এই পুলিশ সদস্যের চাকরিজীবনের শেষ মুহূর্তটিকে স্মরণীয় করে রাখতে বিশেষ এই আয়োজন করা হয়।