কৃত্রিম উপায়ে মোটাতাজা করা গরু চেনার উপায়

কুরবানি এলে দেশে গরুর চাহিদা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এ কারণে অনেক অসাধু গরুর খামারী বেশি দাম পাওয়ার জন্য কৃত্রিম উপায়ে গরু মোটাতাজা করেন। এই গরুর মাংস মানবদেহের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। জেনে নিন কৃত্রিম উপায়ে মোটাতাজা করা গরু চিনবেন যেভাবে।

কৃত্রিমভাবে মোটাতাজা করা গরু দ্রুত শ্বাস-প্রশ্বাস গ্রহণ করে। একটু হাঁটলেই হাঁপিয়ে ওঠে। দেখতে খুবই ক্লান্ত মনে হবে। অন্যদিকে শ্বাস-প্রশ্বাস গ্রহণের সময় শব্দ করে।

গরুর পেছনের রানের মাংস পরীক্ষা করলে কৃত্রিমভাবে গরু মোটাতাজা করার লক্ষণ বোঝা যাবে। ইনজেকশন দিয়ে মোটা করা গরুর রানের মাংস নরম হয়ে থাকে। স্বাভাবিকভাবে যেসব গরু মোটা হয়, সেসব গরুর রানের মাংস বেশ শক্ত হয়।

কৃত্রিম উপায়ে মোটাতাজা করা গরুর মুখে লালা বা ফেনা বেশি থাকে।

কৃত্রিমভাবে মোটাতাজা করা গরু শরীরে পানি জমে যায়। এ কারণে নড়াচড়া একটু কম করে, শান্ত থাকে। ইনজেকশন দিয়ে কিংবা ওষুধ খাইয়ে মোটাতাজা করা গরুর পা ও মুখ ফোলা থাকবে।

অন্যদিকে শরীর থলথল করবে। অধিকাংশ সময় এই গরু ঝিমাবে, সহজে নড়াচড়া করবে না, স্থির থাকবে। যদি গরুর শরীরে হাত দিয়ে তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি মনে হয় তা হলে বুঝতে হবে গরুটি অসুস্থ।