বিয়ের ১২ দিনের মাথায় নববধূর রহস্যজনক মৃত্যু

গাজীপুর জে’লার কালীগঞ্জে আফরিন আক্তার মীম নামে স্কুল শিক্ষার্থীর বিয়ের ১২ দিনের মাথায় রহস্যজনক মৃ'ত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এর পর থেকে স্বামী কাতার প্রবাসী আল-আমিন পলাতক রয়েছেন। প্রেমের সম্পর্কের পর পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয়। বৃহস্পতিবার রাতে কালীগঞ্জ পৌর এলাকার ৫নং ওয়ার্ড বালিগাঁও গ্রামের আনোয়ার হোসেনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নি'হত নববধূ আফরিন আক্তার মীম (১৭) নরসিংদী জে’লার পলা'শ উপজে’লার পলা'শ বাজার এলাকার ড্রাম কা'টার মিস্ত্রী মাহফুজ মিয়ার মেয়ে। সে পলা'শ পাইলট স্কুলের ১০ শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। শুক্রবার বাদ মাগরিব নামাজের জানাজা শেষে নি'হতের স্বামীর বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে লা'শ দা'ফন সম্পন্ন করা হয়েছে।

নি'হতের স্বজনরা জানান, আফরিন আক্তার মীমের সঙ্গে কালীগঞ্জ পৌর এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে কাতার প্রবাসী আল-আমিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। উভয় পরিবারের সম্মতিতে ২১ ফেব্রুয়ারি পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের ১২ দিন অতিবাহিত 'হতে না 'হতেই মীমের জীবনে নেমে আসে বি'ষের ছায়া। এ ঘটনাকে নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃ'ষ্টি হয়েছে।

নি'হতের বাবা মাহফুজ মিয়া বলেন, আমা'র মেয়ের কি হলো জানি না। কেনই বা এ ঘটনাটি ঘটলো। কি দোষ ছিল তার? বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মেয়ের শ্বশুরবাড়ির লোকজন আমাকে ফোনে জানায় সে অ'সুস্থ। তাকে উত্তরায় হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে। তার স্বামীর সঙ্গে বার বার কথা হয় আমা'র। মেয়ের কী হয়েছে বললে সে কথা এড়িয়ে যায়।

পরে তার দীর্ঘক্ষণ পরে অন্য লোক জানায় মেয়ে মা'রা গেছে। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে মেয়ের স্বামী বাড়িতে এসে লা'শ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেই।

এ বি'ষয়ে থা'নার এসআই সুকান্ত বিশ্বা'স জানান, ঘটনাস্থল থেকে নি'হত ওই নববধূর লা'শ উ'দ্ধার করে শুক্রবার দুপুরে লা'শের ময়নাতদ'ন্তের জন্য গাজীপুর শ’হীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর'্গে পাঠানো হয়। প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্টে লা'শর দে'হে আঘা'তের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি।