মামুনুলের পক্ষে স্ট্যাটাস, পদ খোয়ালেন আরো দুই ছাত্রলীগ নেতা

রবিউল হোসেন রবি, চট্টগ্রাম থেকে: হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের পক্ষ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজে’লার দুই ছাত্রলীগ নেতাকে দলীয় পদ থেকে অব্যা'হতি দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) জরুরি বৈঠকর মাধ্যমে তাঁদের পদ থেকে অব্যা'হতি দেওয়া হয় বলে জানান নেতারা।

বহিষ্কৃত দুই ছাত্রলীগ নেতা হলেন— ভাটিয়ারী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতি মো. গিয়াস উদ্দিন এবং ৮ নম্বর সোনাইছড়ি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক মো. আজিজুল হক আজিজ।

জানা যায়, সংসদে হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের বি'ষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া বক্তব্যের বিরোধিতা করার একটি পোস্ট এক ব্যক্তি ফেসবুকে শেয়ার দেয়। আর সেটি শেয়ার করে ভাটিয়ারী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন। অ’পরদিকে মাওলানা মামুনুল হকের ঘটনা নিয়ে তাঁর পক্ষে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয় সোনাইছড়ি ইউনিয়ন ছাত্রলীগ প্রচার সম্পাদক আজিজ।

দুইজনের বি'ষয়টি দলের নেতৃবৃন্দদের দৃ'ষ্টিগোচর হলে সংগঠনের নীতি আদর্শ ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অ'ভিযোগে তাঁদেরকে দলীয় পদ থেকে অব্যা'হতি দেওয়া হয়। এব্যাপারে সোনাইছড়ি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক মো. আজিজুল হক আজিজ বলেন, ‘আমি দীর্ঘদিনের মুজিবাদর্শের একজন সৈনিক। জ্ঞান হওয়ার পর থেকেই আমি এ আদর্শ লালন করছি।’

আজিজের দাবি— তাঁর ফেসবুক আইডি হ্যাক হওয়ার কারণে কে বা কারা' সেই আইডি থেকে মামুনুল হকের পক্ষে স্ট্যাটাস দেয়। আইডি উদ্ধার হওয়ার পর সে পো'ষ্টটি ডিলেট করে দেয়।’

এদিকে ভাটিয়ারীর ছাত্রলীগ নেতা গিয়াস উদ্দিন বলেন, ‘আমার ব্যবহৃত মোবাইল সেটটি চুরি হয়ে যায়। যারা চুরি করেছে তাঁরাই পো'ষ্টটি শেয়ার করেছে। মোবাইল চুরির বি'ষয়টি আমি থা'নাকেও অবহিত করেছি।’

এদিকে দুই ছাত্রলীগ নেতাকে অব্যা'হতি দেয়ার বি'ষয়টি নিশ্চিত করে উপজে’লা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. শিহাব উদ্দিন বলেন, ‘দুইজনই হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের পক্ষে স্ট্যাটাস দিয়েছে যা সংগঠনের নীতি আদর্শ ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ। এ কারণে সংগঠন থেকে দুইজনকে অব্যা'হতি দেওয়া হয়।’