কাল বিয়ে, স্বপনের দেহ এখন মর্গে

বিয়ের কেনাকাটা শেষ। আজ বৃহস্পতিবার ছিল মজিবুর রহমান স্বপনের গায়েহলুদ। শুক্রবার বিয়ে। তবে গতকাল দুপুর থেকে বন্ধ পাওয়া যায় তার মোবাইল নম্বর। এতে চিন্তিত হয়ে পড়ে পরিবার।

পরে খোঁজ নেওয়া হয় তার ভাড়া বাসায়। সেখানে এসে ডাকাডাকি করেও সাড়া মেলেনি। খবর দেওয়া হয় পুলিশকে।

দরজা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে পুলিশ। সেখানে চলছে টেলিভিশন। তার সামনেই পড়ে আছে স্বপনের মৃতদেহ। পরে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।

মৃত মজিবুর রহমান স্বপন কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের আশারকোটা গ্রামের মাওলানা আব্দুল গফুরের ছেলে। কুমিল্লা নগরীর নানুয়ার দিঘিরপার এলাকার একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন তিনি। সেখান থেকেই তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আগামীকাল স্বপনের তৃতীয় বিয়ে হওয়ার দিন ধার্য ছিল। প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ এবং দ্বিতীয় স্ত্রীর মৃত্যুর পর পারিবারিকভাবে আবারও তার বিয়ে ঠিক হয়।

কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, মরদেহে আঘাতের চিহ্ন না থাকলেও, মুখ থেকে কিছু রক্ত বের হয়েছিল। মৃতের পরিবারের দাবি, তিনি স্ট্রোক করেছেন। তবে এটি স্বাভাবিক মৃত্যু কি না আমরা নিশ্চিত হতে পারিনি। ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে।