আমি গু’ণ্ডা-মা’স্তান থেকে চেয়ারম্যান হয়েছি, মাহফিলে হা’মলাসহ অ’শ্লী’ল গা’লিগা’লাজ

কুমিল্লা জে’লার লাকসাম উপজে’লায় গোবিন্দপুর ইউনিয়নের নারায়াণপুর গ্রামের মাহফিলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন শামীম গত ৭ ফেব্রুয়ারি রোববার নিজেই মাহফিলের মঞ্চে উঠে ওয়াজরত অবস্থায় মাওলানা এম হাসিবুর রহমানের মাইক কেড়ে নিয়ে অ’শ্লী'ল ভাষায় গা'লিগা'লা'জ করেন এবং নিজেকে স'ন্ত্রাসী এবং গু'ণ্ডাদের চেয়ারম্যান বলে দাবি করেন।

পরে চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে একদল স'ন্ত্রাসী বাহিনী এসে মাওলানা হাসিবুর রহমানের গাড়ি ভাঙচুর করে। তারপর অবস্থা খারাপ হওয়ায় জীবন বাঁচাতে মাওলানা হাসিবুর লাকসাম থা'না পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ এসে হুজুর ও তার সফর সঙ্গীদের নিরাপ'দ জায়গায় পৌঁছে দেন।

গতকাল সোমবার (৯ ফেব্রুয়ারী) 'বিকাল ৪টা ৪৭ মিনিটে তার ফেসবুকের ভেরিফাইড পেজে মাওলানা হাসিবুর রহমান গাড়ি ভাঙচুরের ছবিসহ চেয়ারম্যানের হাম'লার ঘটনাটি তিনি নিজ ভাষায় বর্ণনা করেন এবং পৃথকভাবে ওই ঘটনার একটি প্রত্যক্ষ ভিডিও আপলোড করেন।

এতে মুহূর্তেই তা ভাইরাল হয়ে যায়। সন্ধ্যা ৭টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মাওলানা হাসিবুরের স্ট্যাটাসটিতে লাইক পড়ে ১২ হাজার,কমেন্ট পড়ে ২ হাজার এবং বিভিন্ন জন শেয়ার করে ২ হাজার ২শটি। অ’পর দিকে হাম'লার ভিডিও এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৪ হাজার ৫৬৩ জন দেখেন।

এ বি'ষয়ে জানতে চাইলে চেয়ারম্যান শামীম হুঙ্কার দেয়ার বি'ষয়টি স্বীকার করে বলেন, ওই সময় আমি এমন হুঙ্কার না দিলে মাহফিলে উপস্থিত প্রায় ১০/১২ হাজার লোক আমাকে মে'রে ফেলতো। মাহফিল পণ্ড করতে গেলেন কেন, এমন প্রশ্নের জবাবে চেয়ারম্যান শামীম বলেন, নিয়ম অনুযায়ী মাহফিলের অনুমুতি নেয়া হয়নি।

সূত্র: আমা'দের কুমিল্লা