টেস্ট থেকে অবসরের গুঞ্জন মাহমুদুল্লাহ’র, কিছুই জানেন না টিম ম্যানেজমেন্ট

১৬ মাস পর টেস্ট দলে ফিরেছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। তাও আবার তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহীমের ইনজুরি শঙ্কায়। সুযোগ পেয়ে ক্ষুরধার ব্যাটিংয়ে নির্বাচকদের ভুল প্রমাণ করেন রিয়াদ।

জিম্বাবুয়ে সিরিজের প্রথম ইনিংসে করেন ক্যারিয়ার সেরা দেড়শ রান। রাজসিক প্রত্যাবর্তনের পর দুঃসংবাদের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। জোর গুঞ্জন উঠেছে চলমান টেস্টের পরই সাদা জার্সির ক্রিকেটকে বিদায় বলবেন মাহমুদুল্লাহ।

এমনও গুঞ্জন উঠেছে টিম ম্যানেজমেন্টকে কিছু জানাননি মাহমুদুল্লাহ। তবে সতীর্থদের সঙ্গে এ বিষয়ে আলাপ করেছেন। এ নিয়ে দেশের দুটি টেলিভিশন চ্যানেলেও জানানো হয়েছে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চলতি টেস্ট খেলে এই ফরম্যাট থেকে অবসরে যাবেন মাহমুদুল্লাহ।

তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তারা এ বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন।

প্রতিদিনের মতো আজও খেলা শেষে বিসিবির মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমামের ভিডিও বার্তা পাঠানোর কথা। জানা গেছে, আজ কথা বলেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। মিরাজের বার্তা পৌঁছালেও রিয়াদের ভিডিও বার্তা পৌঁছেনি গণমাধ্যমকর্মীদের হাতে। তবে এরই মধ্যে জোর গুঞ্জন, ওই ভিডিও বার্তায় টেস্ট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন দলের সিনিয়র ক্রিকেটার মাহমুদুল্লাহ।

শুক্রবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা শুরুর আগে টিম মিটিংয়ে এমন নিজের অবসরের ইচ্ছা প্রকাশ করেন মাহমুদুল্লাহ। বাংলাদেশ বিসিবির একটি সূত্র জানিয়েছে, মান-অভিমান থেকে এমন প্রসঙ্গে আসতে পারে। এ নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শেষে বোর্ড প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে আলোচনা করবেন তিনি।

২০০৯ সালের ৯ই জুলাই কিন্সটনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় মাহমুদুল্লাহর। তবে শেষ কয়েক বছরে এই ফরম্যাটে নিয়মিত নন তিনি।

হারারে টেস্টের আগে সর্বশেষ সাদা পোশাকে ম্যাচ খেলেছিলেন ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে। পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই টেস্টে খারাপ পারফরম্যান্সের কারণে দলের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ও নির্বাচকদের সিদ্ধান্তে এই ফরম্যাট থেকে বাদ দেয়া হয় মাহমুদুল্লাহকে।