গরু চুরিতে ‘সফলতা’ পেয়ে অটোরিকশা চুরিতে নামেন ইয়াছিন, এখন তিনি কোটিপতি!

আটক ইয়াছিন'ের পূর্বের এবং বর্তমান বসতঘর ছোট বেলা থেকেই নাম তার ইয়াছিইন্যা চোর। তাই প্রকাশ্যে এলেও শীত-গরম সব সময় মাফলার পেঁচিয়ে রাখতেননাকে মুখে। যেন কেউ তাকে চিনতে না পারে।

পরিবারে বংশাণুক্রমেই আয় রোজগারের পথ ছিল দিনমজুরি ও রিকশা চালানো। কিন্তু হঠাৎ সেই পেশা ছেড়ে দিয়ে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে জড়িয়ে পড়েন গরু চুরিতে। গরু চুরিতে সফলতা পেয়ে নামেন অটোরিকশা চুরিতে। চালককে অচেতন করে এমনকি হ'ত্যা করেও হাতিয়ে নেন অটোরিকশা।

পরিবারের প্রায় সকলেই কোনো না কোনোভাবে চুরি পেশার সঙ্গে জড়িত। বারবার ধ’রা খেলেও বিভিন্ন ফাঁ'কফোকর দিয়ে বেড়িয়ে পড়েন। ফের দাপটের সঙ্গে চুরি কর্মে নেমে পড়েন। দীর্ঘদিন পর গতকাল মঙ্গলবার রাতে ধ’রা পড়েছেন ইয়াছিন'। তবে তাকে আ'দালতে না পাঠিয়ে অভিযানের নামে এখনো থা'নায় আটক রাখা হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার তাকে আ'দালতে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, গত সোমবার রাতে গোপ'ন সংবাদের ভিত্তিতে কিশোরগঞ্জ শহর থেকে অটোরিকশাসহ তাকে আটক করা হয়। এরপর তাকে থা'নায় রাখা হয়েছে। তাকে নিয়ে এলাকার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালানো হচ্ছে। সে আন্তঃজে’লা অটোরিকশা এবং গরু চুরির সঙ্গে জড়িত।

নান্দাইল থা'নার উপপরিদর্শক মনিরুজ্জামান বলেন, অভিযান অব্যা'হত আছে। তাকে নিয়ে পূর্বের চুরির মালামালসহ তার সাঙ্গদের আটকের চেষ্টা করা হচ্ছে।

থা'না সুত্রে জানা গেছে, নান্দাইল থা'না ছাড়াও আশপাশের বেশ কয়েকটি থা'নায় তার নামে রয়েছে একাধিক চুরির মাম'লা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তার পুরো নাম মো. আমিনুল ইসলাম ওরফে ইয়াছিন' মিয়া (৪৫)। বাড়ি ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজে’লার মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের আতকাপড়া গ্রামে। বাবা ফরিদ মিয়াসহ দুই ভাই রোমান মিয়া ও জামান মিয়া এবং পাশের ঈশ্বরগঞ্জ উপজে’লার মগটুলা ইউনিয়নের ধনিয়াকান্দি গ্রামের শ্বশুর আবু ছায়েদের ছেলে শ্যালক তোফাজ্জল হোসেনসহ (৩০) পরিবারের সকলেই এখন চুরির সঙ্গে জড়িত।

পৈত্রিক ঘরটির জরাজীর্ণ থাকলেও পাশেই কয়েক লাখ টাকা ব্যয় করে নির্মাণ করা হয়েছে পাকাঘর। যা দেখে প্রতিবেশীরা ছাড়াও এলাকার লোকজন 'হতবাক হয়ে যায়। অনেকেই বলেন, আগে শুনতেন চোরের বাড়িতে বিল্ডিং হয় না। এখন শুধু বিল্ডিং না বিভিন্ন সড়কে চলমান বেশ কয়েকটি মাইক্রোবাস ছাড়া সিএনজি চালিত অটোরিকশা রয়েছে তাদের। রয়েছে পাশের গফরগাঁও উপজে’লায় একটি অটোরিকশা শো-রুমের শেয়ার। সব মিলিয়ে আনুমানিককোটি টাকার সম্পত্তির মালিক ইয়াছিন' চোর।

নান্দাইল থা'নার পুলিশ কর্মকর্তা আবুল হাসেম বলেন, তার নামে নান্দাইল থা'নাতেই চারটি মাম'লা রয়েছে। সবগুলোই অটোরিকশা চুরির।