না’লিশ দেয়ায় ২ শিশুকে বেদ’ম প্রহার, হাত ভে’ঙে যায় একজনের

ছেলেদের নামে নালিশ দেয়া পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় মো. রাহাত হাওলাদার (১১) ও ওহেদুল ইসলাম হাওলাদার লালন (৯) নামের দুই শিশুকে লাঠি দিয়ে মারধর করেছেন প্রতিবেশী। এতে ভেঙে যায় রাহাতের হাত।

গত বুধবার (১০ মার্চ) 'বিকেলে উপজে’লার ধাওয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের রায়পাশা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভান্ডারিয়া থা'নায় একটি মাম'লা হয়েছে।

আ'হত রাহাত উপজে’লার নদমুলা ইউনিয়নের চরখালী গ্রামের মৃ'ত শামীম হাওলাদারের ছেলে আর আ'হত ওহেদুল ইসলাম হাওলাদার লালন উপজে’লার রায়পাশা গ্রামের বেলাল হাওলাদারের ছেলে। গত ২ বছর আগে রাহাতের বাবা-মা মা'রা যাওয়ায় সে রায়পাশা গ্রামে তার মামা বেলাল হওলাদারের বাড়িতে থাকে। রাহাত স্থানীয় রায়পাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণীতে ও ওহেদুল ইসলাম লালন স্থানীয় রায়পাশা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র।

আ'হত রাহাত হাওলাদার জানায়, বুধবার 'বিকেল ৫টার দিকে রাজপাশায় বাদল হাওলাদারের বাড়ির সামনের রাস্তায় বসে তার দুই ছেলে সাইমুন ও সিয়াম তাদের চাচাতো ভাই মুবিনকে মারছিল। বি'ষয়টি মুবিনের মাকে আমর'া জানাই।

এতে সাইমুনের বাবা বাদল হাওলাদার রেগে গিয়ে আমাকে ও আমার মামাতো ভাইকে লাঠি দিয়ে মারধর করে। এতে আমার বাম হাত ভেঙে যায়। পরে স্থানীয়রা আমা'দের উদ্ধার করে উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন।

উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার ফয়সাল আহম্মেদ জানান, রাহাতের বাম হাতের কনুই বিচ্ছিন'্ন হয়ে গেছে। তার হাড় ভেঙে গেছে। এছাড়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে লাঠির আঘা'তের চিহ্ন রয়েছে। আ'হত রাহাতকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ভান্ডারিয়া থা'নার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাসুমুর রহমান বিশ্বা'স জানান, অ'ভিযুক্ত বাদল হাওলাদারের বিরুদ্ধে মাম'লা দায়ের হয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চে'ষ্টা চলছে।