বাবার সামনেই ছেলেকে আস্ত গিলে খেল কুমির

বাবার সাথে মাছ ধরতে নদীতে গিয়েছিল ছেলে। সেখানে পিতার সামনেই ছেলেকে গিলে খেয়ে ফেলে বিশাল এক কুমির। একদিন পর কুমিরটিকে মৃ'ত অবস্থায় ভাসতে দেখা যায়। স্থানীয় মানুষজন তখন এই প্রাণীটির পেট কাটে সেই ছেলের সন্ধানে। পেটে আস্ত অবস্থাতেই ছেলেটির মৃ'তদেহ পাওয়া যায়।

গত বুধবার এমন দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা ঘটেছে ইন্দোনেশিয়ার পূর্ব কালিমাস্তানে, খবর ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্যা সানের। মাত্র আট বছর বয়সী ছেলেটির নাম দিমান মুলকান সা'পুত্রা। কুমির তাকে খাওয়ার পর দিমাসের পিতা সুবলিয়ানসিয়ার দিমাসের পিতা সুবলিয়ানসিয়ার চিৎকারে ছুটে যায় অন্যরা।

কিন্তু না, কোথাও কোনো সন্ধান নেই কুমিরের। এর একদিন পরে বৃহস্পতিবার কুমিরটির সন্ধান পাওয়া যায় পাশের গ্রাম মুয়ারা বেঙ্গোলোন গ্রামে। তার পেটে তখন দিমাসের আস্ত দেহ। মা'রা গেছে কুমিরটি।

স্থানীয় উদ্ধারকারী টিমের কর্মকর্তা ওকতাভিয়ান্তো বলেছেন, দিমাসকে কুমিরে কামড়ে পানিতে ঝাঁপ দিলে দিমাসের পিতা সুবলিয়ানসিয়াও পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। তিনি খালি হাতেই কুমিরটিকে আঘা'ত করেন। তাতে কুমিরের কিছুই করতে পারেননি। উল্টো কুমিরটি গভীর পানিতে তলিয়ে গিয়ে অদৃশ্য হয়ে গিয়েছিল। মৃ'ত কুমিরের সন্ধান পেয়ে স্থানীয়রা সমবেত হয়ে কুমিরটিকে চিৎকরে তার পেট কে'টে উদ্ধার করে দিমাসের মৃ'তদেহ। এতে দেখা যায়, দিমাসকে না চিবিয়েই আস্ত গিলে ফেলেছে কুমির। তার অক্ষত দেহ উদ্ধার করা হয় কুমিরের পেট থেকে। তা দেখে স্থানীয়রা কান্নায় ভেঙে পড়েন।