চু’রির অভিযোগে যুবককে গাছের সঙ্গে বেঁ’ধে নি’র্যাতন

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে চু’রির অ'ভিযোগে অচিন্ত কুমা'র মণ্ডল (২৫) নামের এক যুবককে গাছের সঙ্গে বেঁধে নি'র্যা'তনের অ'ভিযোগ উঠেছে স্থানীয় কয়েকজন প্রভাবশালীর বিরু'দ্ধে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১১ মা'র্চ) রাতে নি'র্যা'তিত যুবকের বাবা অধির কুমা'র মণ্ডল বাদী হয়ে মাম'লা দায়ের করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, অচিন্ত ছেলেটা ভাল না এটা এলাকার সবাই জানে। ৬ মা'র্চ (শনিবার) নুয়া ইউপির বিলহিজলী গ্রামের রেজাউল ইসলাম ওরফে রেজার বাড়িতে চু’রির ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় পরদিন রাতে চু’রির অ'ভিযোগে অধির কুমা'র মণ্ডলের বাড়িতে গিয়ে স্থানীয় রেজাউল ইসলাম ওরফে রেজা, জিয়া, ময়েন উদ্দিন মা'ষ্টারসহ কয়েক ব্যক্তি অচিন্তকে ঘু'ম থেকে ডেকে একটি বাগানে নিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে রড, হাতুড়ি দিয়ে মা'রধর করে।

নি'র্যা'তনকারীরা প্রভাবশালী বলে এসময় কেউ এগিয়ে আসেনি। নি'র্যা'তনের শি'কার ওই যুবকের মা-বাবা এগিয়ে এলে তাদেরও কি’ল-ঘু’সি দেয় তারা। পরে আ'হত যুবক অচিন্তকে প্রথমে বালিয়াকা’ন্দি উপজে’লা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ও পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপা’তালে নেয়া হয়।

নুয়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বলেন, ‘এক যুবককে নি'র্যা'’তনের বি'ষয়ে শুনেছেন, গাছের সঙ্গে বেঁ’ধে কিনা সেটা জানেন না। তবে ওই যুবক চু’রির কারণে জে’ল খেটেছে বলেও জানান তিনি।।

এদিকে রেজাউল ইসলাম রেজা অ'ভিযোগ অ'স্বীকার করে বলেন, ‘অচিন্ত মণ্ডল একজন চিহ্নিত চোর এবং মা'দক কারবারি। ফলে বিভিন্ন সময়ে জে’লও খেটেছে।’

বালিয়াকান্দি থা'নার ভারপ্রা'প্ত কর্মক'র্তা (ওসি) তারিকুজ্জামান বলেন, ‘ এ ঘটনা থা'নায় একটি মাম'লা দায়ের হয়েছে। আইন নিজের হাতে তুলে নেয়ার ক্ষ'মতা কারো নাই। পুলিশ বি'ষয়টি তদ'ন্ত করছে।’