বাজারে ইলিশ আছে, নেই বৈশাখের আমেজ

কদিন পরই বাঙালির চিরচেনা পহেলা বৈশাখ। তবে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব যেন বৈশাখী উৎসবকে লকডাউন করেছে। পহেলা বৈশাখ এলেও প্রভাব নেই ইলিশের বাজারে।

একদিকে বিধিনিষে'ধের ঘোষণা, অন্যদিকে শুরু হচ্ছে পবিত্র রমজান মাস। এ দুটোর প্রভাব পড়েছে ইলিশের বাজারে। যার কারণে কাঙ্ক্ষিত ক্রেতা পাচ্ছেন না 'বিক্রেতারা, প্রভাব পড়েছে দামেও। সব মিলিয়ে 'হতাশ ইলিশ 'বিক্রেতারা। এবার নেই আগের সে দৃশ্য, তাই তো বৈশাখী ইলিশের অতিরিক্ত দাম হাঁকছেন না তারা।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। রাজধানীর বিভিন্ন বাজারের একই চিত্র। সাধারণ ক্রেতাদের উপস্থিতি আছে আগের মতো। তবে ইলিশ কেনার বাড়তি আগ্রহ তেমন নেই।

ইলিশের দাম নিয়ে কারওয়ান বাজারের মাছ ব্যবসায়ীরা রফিক বলেন, এক কেজি ওজনের ইলিশ এক হাজার থেকে এক হাজার ৬০০ টাকা পর্যন্ত 'বিক্রি করছেন তারা। এক কেজির নিচে ৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ 'বিক্রি হচ্ছে ৯০০ থেকে এক হাজার টাকায়। আর জাটকা 'বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৫০০ টাকায়।

খিলগাঁও বাজারে কাউসার নামে এক ক্রেতা বলেন, ‘লকডাউনের’ আগে বাজারে এসেছি নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে। বৈশাখ উপলক্ষে আলাদা কোনো পরিকল্পনা নেই। তবে দাম কম হলে ইলিশ কিনতে পারি। কিনতেই হবে এমন তো নয়।

মাছ ব্যবসায়ীরা বলছেন, মানুষ এখন যতটুকু প্রয়োজন ততটুকু কিনছে। যার প্রভাব বাজারে পড়েছে।