‘মুভমেন্ট পাস’ নিয়ে শিং মাছ কিনতে গেলেন তিনি, অতঃপর….

করো’নাভাই’রাসের ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ ঠেকাতে আট' দিন সর্বাত্মক লকডাউন ঘোষণায় আলোচনায় এখন ‘মুভমেন্ট পাস’।

সোনার হরিণে পরিণত হয়েছে এই মুভমেন্ট পাস। জরুরিভিত্তিতে বাইরে যাওয়ার জন্য পুলিশের চালু করা এই পাসের ওয়েবসাইটে ৩৩ ঘণ্টায় সাত কোটি ৮১ লাখ নাগরিক হিট করেছে। সবারই প্রয়োজন ‘মুভমেন্ট পাস’।

এমন পরিস্থিতিতে কঠোর লকডাউনের প্রথম দিনেই অ’তি প্রয়োজনীয় মুভমেন্ট পাসের অ’পব্যবহারের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি পুলিশের।

মুভমেন্ট পাসে পাওয়ার সাইটি নিয়ন্ত্রণ করতে যখন হিমসিম খাচ্ছে কর্তৃপক্ষ তখন জানা গেল, চিকিৎসা’সেবার মতো জরুরি কোনো প্রয়োজনে নয়, বাজার থেকে শিং মাছ কিনতে মুভমেন্ট পাস ব্যবহার করেছেন এক নগরবাসী।

এমন কা’ণ্ডে সেই ব্যক্তিকে ৩ হাজার টাকা জ’রিমানাও করেছে কর্তব্যরত সার্জেন্ট।

সূত্র জানায়, মুভমেন্ট পাস নিয়ে রাজধানীর উত্তরার বাসা থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে মোটরসাইকেল নিয়ে মালিবাগ বাজারের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন এক ব্যক্তি। পথে রামপুরায় বাংলাদেশ টেলিভিশনের সামনের চেকপোস্টে পুলিশ তাকে ধরলে তিনি তার মুভমেন্ট পাস দেখান।

কোথায় আর কেন যাচ্ছেন জানতে চাইলে সত্যটাই জানান ওই ব্যক্তি। বলেন – বাজারের উদ্দেশে মালিবাগ যাচ্ছেন। তাই বলে উত্তরা থেকে! জবাবে ওই ব্যক্তি মালিবাগ বাজারে শিং মাছ পাওয়ার প্র'ত্যাশায় যাচ্ছেন বলে জানান।

এমন জবাবে যারপরনাই 'হতাবাক হন পুলিশ সদস্যরা। করো’নার এই সংক্রমণে মুভমেন্ট পাস নিয়ে শিং মাছ কিনতে যাওয়া বি'ষয়টি হ’জম হয়নি পুলিশের। বি'ষয়টিকে মুভমেন্ট পাসের অ’পব্যবহার বলে মনে হয় ট্রাফিক পুলিশের কর্তব্যরত সার্জেন্টের।

যে কারণে শিং মাছ প্রিয় ওই ব্যক্তিকে ৩ হাজার টাকা জ’রিমানা করেন সার্জেন্ট শেখ জোবায়ের আহমেদ।