অ্যাটেনশন চেয়েও হলে দর্শক আনতে পারলো না দীঘি

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নেতারা সুনামগঞ্জের দিরাই উপজে’লায় শানে রিসালাত সম্মেলনে যোগ দিতে হেলিকপ্টার চড়ে আসেন । এ সময় হেলিকপ্টারটি দিরাই মজলিসপুর গ্রামে এসে নামলে একদল তরুণ সেলফি তোলার জন্য হেলিকপ্টারের সামনে দৌঁড়ে যান।

এসময় হেলিকপ্টার থেকে লাফ দিয়ে নিচে নামেন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব আল্লামা মামুনুল হক। তরুণরা তার সঙ্গে সেলফি তুলতে এগিয়ে গেলে তিনি স্বেচ্ছাসেবকের হাত থেকে লাঠি নিয়ে সেলফি তুলতে আসা তরুণদের তাড়িয়ে দেন।

পরে ক্ষু'ব্ধ হয়ে তিনি সবার সামনে বলেন, ‘ইসলামের কথা বলার জন্য আজ দিরাই এসেছি। সেলফি ওঠাতে আসি নাই। বাংলাদেশে টিকটক, সেলফি আর ফেসবুক লাইভ নিয়ে সবাই ব্যস্ত। কেন ভাই? ওইসব ছাড়া কি আপনাদের কোনো কাজ নাই? আপনাদের মাথায় কি সমস্যা আছে যে লাইক পাওয়ার জন্য সব জায়গায় সেলফি তুলতে হবে?’

শানে রিসালাত সম্মেলনে যোগ দিতে হেলিকপ্টারে চড়ে সুনামগঞ্জের দিরাই উপজে’লায় যান হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা জুনাইদ আহম'দ বাবুনগরী।

এ সময় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির নায়েবে আমীর আল্লামা নুরুল ইসলাম খান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব জুনাইদ আল-হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব আল্লামা মামুনুল হক, যুগ্ম মহাসচিব নাছির উদ্দিন মুনিরসহ হেফাজতের কেন্দ্রীয় নেতারা তার সঙ্গে ছিলেন। হেলিকপ্টার থেকে নামার পর ৬০০ জনের স্বেচ্ছাসেবক টিম তাদেরকে নিরাপ'ত্তা দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যায়।