বেতনসহ ছুটি পেতে একই স্ত্রীকে চারবার বিয়ে, তিনবার ডিভোর্স!

বিয়ের জন্য অফিস থেকে বেতনসহ (বৈতনিক) ছুটি কা'টাতে একই স্ত্রীকে চারবার বিয়ে এবং তিনবার ডিভোর্স দিয়েছেন তাইওয়ানের রাজধানী তাইপের এক ব্যক্তি। গত বছর এভাবে তিনি আ'দায় করে নিয়েছেন ৩২টি ছুটি। খবর- তাইওয়ানের গণমাধ্যম ইউনাইটেড ডেইলি নিউজের।

শেষবার বিয়ের ৩৭ দিনের মাথায় স্ত্রীকে ডিভোর্স দেন ওই ব্যক্তি। এবারও তার উদ্দেশ্য ছিল বৈতনিক ছুটিকে দীর্ঘায়িত করা। গত বছরের ৬ এপ্রিল বিয়ে করেন একটি ব্যাংকে কর্মর'ত ওই ব্যক্তি।

বিয়ের জন্য নির্ধারিত ছুটি শেষ হওয়ার কিছুদিনের মাথায় স্ত্রীকে ডিভোর্স দেন তিনি। তারপর আবার বিয়ের জন্য ছুটির আবেদন করেন এবং একই নারীকে বিয়ে করেন। একই প্রক্রিয়ায় মোট তিনবার স্ত্রীকে ডিভোর্স দেন ওই ব্যক্তি।

মোট বিয়ে করেন চারবার। অফিসের কাছে আবেদন করেও অতিরিক্ত বৈতনিক ছুটি না পেয়ে তিনি এমন কাণ্ড ঘটান।

চতুর্থবারে বি'ষয়টি ব্যাংকের নজরে আসে। খোঁজ নিয়ে ক'র্তৃপক্ষ জানতে পারে ছুটি পেতে ওই ব্যক্তি একই নারীকে বারবার বিয়ে করছেন আবার ডিভোর্স দিচ্ছেন। এরপরই ব্যাংক ওই ব্যক্তিকে ফের ছুটি দিতে অ'স্বীকার করে । কিন্তু ওই ব্যক্তির ভাষ্য, তিনি আইন ল'ঙ্ঘন করে কিছু করেননি।

এরপর ব্যাংকের বিরু'দ্ধে তাইপে সিটি লেবার ব্যুরোতে অ'ভিযোগ করেন তিনি। তদ'ন্তে দেখা যায়, ওই ব্যক্তির উদ্দেশ্য অ'সৎ হলেও তিনি আইনের বাইরে কিছু করেননি। তাইওয়ানের প্রচলিত আইন অনুযায়ী কোনো কর্মচারী বিয়ে করলে ব্যাংক তাকে আট' দিনের বৈতনিক ছুটি দিতে বাধ্য। ব্যাংক তা পালন না করে আইন ভেঙেছে। এ অ’পরাধে ব্যাংক ক'র্তৃপক্ষকে ২০ হাজার তাইওয়ান মুদ্রা (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬০ হাজার টাকা) জরিমানা করা হয়।