বিয়ের উপকারিতা জানালেন অভিনেত্রী টয়া

মুমতাহিনা টয়া পরিচিত মুখ অভিনয় দিয়ে, নাচ দিয়ে এবং তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল দিয়েও। ওদিকে শাওন পরিচিত বর্তমানের নির্ভরযোগ্য অভিনয় শিল্পী হিসেবে- দুজনে গতিপথ একত্রে এসে মিলবে কে জানতো। তাই হয়েছে, সমান্তরাল বয়ে চলে মিশেছেন একত্রে। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে বিয়ে করেন শাওন-টয়া। বিয়ের এক বছরে কী উপলব্ধি হলো?

সেটাই জানালেন মুমতাহিনা চৌধুরী টয়া। বিয়ে ছাড়া জীবন যে অ’পূর্ণ সে কথা অকপটে স্বীকার করলেন প্রণয় স্রোতে ভাসতে থাকা টয়া। নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে শাওনের সঙ্গে বেশকিছু মধুর ও অন্তরঙ্গ ছবি প্রকাশ করেছেন এই অভিনেত্রী। সেখানে পয়েন্ট আকারে বিয়ের উপকারিতে বোঝালেন টয়া।

টয়া বলেন, আমার বিয়ের প্রথম বছরে আমি অন্তত তিনটা জিনিস শিখেছি। এ নম্বর হলো- বিয়ে ছাড়া কোনোভাবেই জীবন পূর্ণ নয়। দুই নম্বর হলো- প্রেমের সম্পর্কের সময়টা এবং বিয়ের পরের সম্পর্কটা একেবারে আলাদা।

তিন নম্বর হলো-জীবনটা অগোছালো, কঠিনতর বা জটিল, মাঝেমাঝে এই জীবনটাই ভীতিকর। যখন তোমার সঙ্গে সঠিক মানুষটা থাকবে- এইসব ঝামেলা আর থাকবে না। জীবন হয়ে উঠবে মাধুর্যময়, দুর্দান্ত।

কাজের সূত্রে টয়া এবং শাওন অল্প সময়ে কাছের বন্ধুতে পরিণত হন। এবং ধীরে ধীরে তারা একে অ’পরকে জীবনসঙ্গী হিসেবে ভাবা শুরু করেন। ২০১৯ সালের শেষের দিকে পরিবারের সদস্যদের অনুমতিও নিয়ে নেন তারা। বাকী ছিল শুধু ঘোষণা দেওয়ার।

জানুয়ারি মাসে শাওনের জন্ম'দিন উপলক্ষে একটি ‘চমকের’ আয়োজন করেন টয়া। কিন্তু সেই চমকেই নতুন চমক যোগ করে শাওন টয়াকে বিয়ের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে প্রস্তাব দেন সকলের সামনে। এরপরের ঘটনা তো আর কারো অজানা নয়।