ফলের নাম না বলায় পুরো বাজারের ফল ট্রাক ভরে মায়ের জন্য নিয়ে এলেন ডিপজল!

খল অভিনেতা হিসেবেই অধিক পরিচিত তিনি। পর্দায় যেমনই থাকুক না কেন, বাস্তব জীবনে হিরোর ভূমিকায় দেখা গেছে তাকে। বিভিন্ন সময়ে ডিপজলের সেবামূলক কাজের কথাও উঠে আসে। তবে তিনি তার মাকে প্রচন্ড ভালোবাসতেন। তার কাছের অনেকেই এমন কথা বলেন।

কমেডি অভিনেতা জ্যাকি আলমগীর জানালেন, ডিপজল সাহেব প্রচন্ড মা ভক্ত। মায়ের প্রতি ডিপজলের ভালোবাসার কথা জানিয়ে জ্যাকি আলমগীর বলেন, ‘ডিপজল সাহেব চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা, প্রযোজক। কিন্তু তিনি একজন মা ভক্ত মানুষ। এটা হয়তো তার ভক্তরা জানেন না।’

একটি ঘটনার বর্ণনা দিয়ে জ্যাকি আলমগীর বলেন, একদিন তার মা গাড়ির ড্রাইভারকে বলেছিলেন-ডিপজলকে ফল নিয়ে আসতে বলিস। তার ড্রাইভার গাড়ি চালাতে চালাতে ডিপজল সাহেবকে বললেন-খালাম্মা ফল নিতে বলেছেন। তখন ডিপজল সাহেব বলেন-কি ফল নিতে বলছেন? ড্রাইভার উত্তরে বলেন, ফলের নাম তো বলেননি।

এরপর ডিপজল সাহেব যে কাণ্ড করলেন তা অবাক করার মতো। কারণ ফলের বাজারে গিয়ে ট্রাক ভরে সব রকম ফল কিনে মায়ের জন্য নিয়ে আসেন। ডিপজল সাহেবের এমন কাণ্ড আমর'া অনেক দেখেছি। বাস্তবে তিনি অনেক ভালো মানুষ। ডিপজলের মায়ের নাম জাবেদা খাতুন। ২০১৭ সালে মাকে হারান তিনি।

করোনা মহামারির শুরু থেকেই ডিপজল নানাভাবে চলচ্চিত্রের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। দাপুটে এই অভিনেতা অ'সহায় শিল্পী, কলাকুশলী, পরিচালক, টেকনিশিয়ানদের বরাবরই সহযোগিতা করেন। এমনকি চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর বিভিন্ন অনুষ্ঠানেও অনুদান দিয়ে থাকেন।

এরই অংশ হিসেবে করোনাভাইরাসে সৃষ্ট দুর্যোগে অ'সহায় হয়ে পড়া চলচ্চিত্রের বুকিং এজেন্টদের পাশে দাঁড়ালেন তিনি। মনোয়ার হোসেন ডিপজল বর্তমানে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। হাস্যরসাত্মক অভিনয় করে মানুষকে আনন্দ দেন জ্যাকি আলমগীর। প্রায় সাত শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন এই অভিনেতা।