‘দুই পয়সার মেয়ে’ বলায় নির্মাতা ঝন্টুকে যা বললেন দীঘি

শিশুশিল্পী থেকে নায়িকা হয়ে দর্শকের সামনে হাজির হয়েছেন প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। তার প্রথম সিনেমা হিসেবে মুক্তি পেয়েছে ‘তুমি আছো তুমি নেই’। ১২ মার্চ মুক্তি পাওয়া ছবিটির নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। ট্রেলার প্রকাশের পর সেটি নিয়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে গেলে নায়িকা দীঘি দাবি করেছিলেন ছবিটি চলবে না।

এ নিয়ে 'ক্ষেপে যান ঝন্টু। তিনি দীঘির বিরুদ্ধে কোটি টাকার মাম'লার ঘোষণাও দেন। তবে মাম'লা করেননি। আর ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমাও চলেনি। যেসব হলে মুক্তি পেয়েছে সেগু'লোর প্রায় সবখানেই ভরাডুবির খবর।

এদিকে সিনেমাটি মুক্তির আগে এক সাক্ষাৎকারে দীঘিকে ‘দুই পয়সার মেয়ে’ বলে উল্লেখ করেছিলেন দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। গত ১১ মার্চ এক সাক্ষাৎকারে ঝন্টু বলেছিলেন, ‘ওর কথা শুনে মনে হয় মেয়েটা মোটামুটি লেখাপড়া করছে। সুন্দর সুন্দর ইংরেজি শব্দগু'লো ব্যবহার করে। জ্ঞান নেই তার, জ্ঞান থাকলে নিজের ছবি চলবে না এই কথা কেউ বলে!’

নিজের সিনেমার নায়িকাকে ‘দুই পয়সার মেয়ে’ বলা কতটা শোভনীয়? এমন প্রশ্নের উত্তরে ঝন্টু বলেছিলেন, ‘দুই পয়সার মেয়ে না হলে এমন কথা বলতে পারে না। চলচ্চিত্রের জন্য সে দুই পয়সার। লেট মি ফিনিস, দুই পয়সার মেয়ে বলছি এই জন্য, চলচ্চিত্রের জন্য সে দুই পয়সার।’

এবার এ প্রসঙ্গে দীঘি একটি টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে মুখ খুলেছেন। তিনি বলেন, ‘এটা আসলে কীভাবে? আমর'া তো কাউকে এবিউজ করতে পারি না। উনি (ঝন্টু) আমাকে পার্সোনাল অ্যাটাক করেছেন। আমি খুব বেশি ক'ষ্ট পেয়েছি জিনিসটাতে। সিনেমা নিয়ে মন্তব্য করা পর্যন্ত ঠিক ছিল। কিন্তু ফ্যা'মিলিতে কেন গেল?

আমি এ রকম কোনে ফ্যা'মিলি থেকে বিলং করি না যে, আমাকে দুই পয়সা বললে আমার আশপাশের মানুষ চুপ থাকবে।’ প্রসঙ্গত, শিশুশিল্পী হিসেবে ৩০টি সিনেমায় অ'ভিনয় করেছেন দীঘি। পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও।

এদিকে নায়িকা হিসেবে দীঘি প্রথম কাজ শুরু করেন ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ সিনেমায়। এটি ২৬ মার্চ মুক্তি পাবে। এছাড়া দীঘি অ'ভিনয় করছেন ‘বঙ্গবন্ধু’ বায়োপিকে। সম্প্রতি তিনি শেষ করেছেন ‘শেষ চিঠি’ নামের একটি ওয়েব ফিল্মের কাজ।