‘রাস্তায় সাজানো ইফতার’ তুলে নিচ্ছেন খেটে খাওয়া মানুষ

পটুয়াখালীর সার্কিট হাউজের সামনের মোড়ে রাস্তায় সাজানো থাকে ইফতার। রোজাদার রিকশাচালকসহ সমাজের নিম্নবিত্তরা যে যার মতো খাবার প্যাকেট তুলে নিয়ে যান। এরপর যে যার মতো ইফতারি সেরে নেন। আর প্রতিদিন এ কাজ করে যাচ্ছে জে’লার ‘বাসী’ নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

পটুয়াখালী বিত্তবানের সহযোগিতায় তারা পুরো রমজান মাস জুড়ে রিকশাচালকসহ সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের জন্য এই আয়োজন করেছে ‘বাসী’। মূলত এই লকডাউনের সময় সাধারণ মানুষের আয়ের পথ বন্ধ থাকায় তাদের এই আয়োজন।

'বিকেল চারটার পর ইফতারের প্যাকেট তৈরির কাজ শুরু হয় পটুয়াখালী শিশু আলাউদ্দীন শিশু পার্কের সামনের একটি ঘরে। 'বিকেল পাঁচটার দিকে শহরের সার্কিট হাউসের সামনের মোরে রাস্তায় ইফতারির প্যাকেট সাজিয়ে দেয়া হয়। ওই রাস্তা দিয়ে রিকশাচালকসহ সাধারণ মানুষ গেলে তাদেকে জিজ্ঞেস করা হয় রোজা আছেন কি না। রোজা থাকলে এক প্যাকেট খাবার ও একটি পানির বোতল দেয়া হয়।

‘বাসী’ সংগঠনের আহ্বায়ক রায়হান আহমেদ জানান, রোববার ৫০ টি খাবারের প্যাকেট বিতরণ করা হয়েছে। প্রতি প্যাকে'টে আমর'া বুট, মুড়ি, পিয়াজু, বেগু'নি, আলুর চপ, খেজুর ও জিলাপি ও সাথে একটি পানির বোতল দেই। বিত্তবানদের সহায়তায় এ কার্যক্রম করা হয় বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, লকডাউন চলাকালে বেশিরভাগ খাবারের দোকান বন্ধ রয়েছে। অনেক রোজাদার ব্যক্তি ইফতার করতে পারে না। তাই আমর'া বিনা মূল্যে এই ইফতারের ব্যাব'স্থা করেছি। যা পুরো মাস চলবে।

পটুয়াখালীর ‘বাসী’ নামের এই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি করোনা মহামা'রিতে জে’লায় সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে।