অবশেষে জাতীয় দলের কোচ হতে যাচ্ছেন সালাউদ্দিন, সাথে থাকতে পারেন মাশরাফি

বাংলাদেশ টাইগার্স নামক ছায়া জাতীয় দলের কোচিংয়ের দায়িত্বে থাকবেন স্থানীয় কোচেরা। বুধবার (১৬ জুন) গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পরিকল্পনাটির দায়িত্ব থাকা কাজী এনাম আহমেদ।

কোন ক্রিকেটার ইনজুরিতে পড়লে কিংবা সিরিজের আগে কোন ক্রিকেটার নিজেকে সরিয়ে নিলে তাঁদের বিকল্প নিতে গিয়ে বেগ পেতে হয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি)। মূলত, জাতীয় দলের জন্য পর্যাপ্ত বিকল্প ক্রিকেটার প্রস্তুত রাখতে বাংলাদেশ টাইগার্স নামক ছায়া জাতীয় দল তৈরি করছে বিসিবি।

যেখানে জাতীয় দল বাদ পড়া কিংবা ভবিষ্যতে জাতীয় দলের বিকল্প হতে পারে এমন ক্রিকেটারদের প্রশিক্ষণ দেবে বোর্ড। হাইপারফরম্যান্স ইউনিটে বিদেশি কোচদের আধিক্য থাকলেও বাংলাদেশ টাইগার্সের দায়িত্বে থাকবেন স্থানীয় কোচরা।

জাতীয় দল থেকে অবসর নেয়ার পর অনেকেই ইতোমধ্যে কোচিং পেশার সঙ্গে ‍যুক্ত হয়েছেন। যে তালিকায় রয়েছেন তালহা জুবায়ের, আফতাব আহমেদ, রাজিন সালেহ, নাজমুল হোসেন কিংবা নাফিস ইকবালের মতো সাবেক ক্রিকেটাররা।

এ ছাড়া বেশ কয়েকজন কোচ রয়েছেন যারা কিনা ধারাবাহিকভাবে ঘরোয়া ক্রিকেট সাফল্য পাচ্ছেন। যেখানে রয়েছেন সারোয়ার ইমরান, মিজানুর রহমান বাবলু ও মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের মতো কোচরা। মূলত তাদেরকে এগিয়ে নিতেই বাংলাদেশ টাইগার্সের দায়িত্ব দেয়া হবে স্থানীয় কোচদের।

বিসিবি সাবেক অধিনায়কদেরকে সাথে রাখার কথা ভাবতে, এতে করে ক্রিকেটারদের মানসিক প্রস্তুতির বিষয়টা নিয়ে আর উদ্বিগ্ন হতে হবে না। সাবেক অধিনায়কদের মধ্যে মাশরাফি বিন মর্তুজা এগিয়ে আছেন এই লিস্টে। তবে এখনো সব কিছু চূড়ান্ত নয়।

এ প্রসঙ্গে কাজী এনাম বলেন, ‘আমরা চাই স্থানীয় কোচদের এখানকার দায়িত্ব দিতে। জাতীয় দলের অনেক অবসরপ্রাপ্ত খেলোয়াড় আছেন যারা কিন্তু এখনকার ঘরোয়া লিগ-টুর্নামেন্টে নিয়মিত কাজ করছে। আমরা তাদের উৎসাহ দিলে তারা কাজ করে নিজেদের তৈরি করে নিতে পারবেন। এছাড়া ঘরোয়া ক্রিকেটে অনেক কোচই ভালো করছেন। এভাবেই আমরা তাদের জাতীয় দলের সাথে যুক্ত করতে চাই।’