ভাইয়ের বিয়েতে এসে বাড়ি ফেরা হলো না বোনের

ভাইয়ের বিয়েতে এসে বাড়ি ফেরা হলো না টুম্পা খাতুন (২৮) নামের এক 'হতভাগা বোনের। শুক্রবার 'বিকাল ৩টায় ভাই বৌকে নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের ঝলমলিয়া মুরাদের পাম্পের কাছে মালবাহী ট্রাকের চাকায় পি'ষ্ট হয়ে মা'রা যায় টুম্পা।

এসময় সৌভাগ্য ক্রমে বেঁচে যায় তার মেয়ে ও স্বামী আবু সামা। নি'হত টুম্পা পুঠিয়া পৌরসভার কাঁঠালবাড়িয়া ৮ নং ওয়ার্ডের আবু সামার স্ত্রী। টুম্পার স্বজনরা জানান, নি'হত টুম্পার ভাইয়ের বিয়েতে বড়যাত্রী হয়ে সে তার স্বামী ও মেয়ে তোয়াসহ আত্মীয় স্বজনেরা বিয়েতে যায়।

বিয়ে শেষে বৌকে নিয়ে বড়যাত্রীসহ মোটরসাইকেলে যোগে নি'হত টুম্পা ও তার স্বামী আবু সামা মেয়েসহ বাড়ি ফিরছিলো। পথিমধ্যে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের ঝলমলিয়া পাম্পের কাছে পৌঁছানো মাত্রই আবু সামার মোটরসাইকেলের সাথে বরযাত্রীর অ’পর এক মোটারসাইকেল পাশাপাশি থাকায় দুই মোটরসাইকেলের সং'ঘর্ষ হয়।

এতে মোটরসাইকেলে থাকা আবু সামা ও তার স্ত্রী টুম্পা মেয়ে তোয়া মহাসড়কে ছিটকে পড়ে। এসময় অ’পর দিক থেকে একটি মালবাহী ট্রাকের চাকায় টুম্পা পি'ষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে নি'হত হয়।

এসময় নি'হত টুম্পার স্বামী সামা মোটরসাইকেল থেকে পড়ে আ'হত হয়। আ'হত সামাকে পুঠিয়া উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সৌভাগ্যক্রমে শিশু তোয়ার কোন ক্ষয়ক্ষ'তি হয়নি। খবর পেয়ে পবা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁ'ড়ি ঘটনা স্থলে থেকে ট্রাকটিকে আট'ক করে।

এব্যাপারে শিবপুর পবা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁ'ড়ি ইনচার্জ লুৎফর রহমান জানান, নি'হতের আত্মীয় স্বজনের আবেদনের প্রেক্ষিতে লা'শ ময়না তদ'ন্ত ছাড়াই তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আট'ক ট্রাক ড্রাইভার বাবুলের বিরুদ্ধে মাম'লা দায়ের করা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।