কারও যখন বলার সাহস নাই, আমিই না হয় বললাম: সাকিব

বাংলাদেশ ক্রিকে'টের পোস্টার বয় সাকিব আল হাসান। মাঠ কিংবা মাঠের বাইরে, আলোচনার সিংহভাগ জুড়ে থাকেন তিনি। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি লাইভ অনুষ্ঠানে অতিথি হয়ে এসেছিলেন টাইগার অলরাউন্ডার। সেখানে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বেশ কয়েকজন পরিচালকের বিপক্ষে দায়িত্বে অবহেলার অ'ভিযোগ এনেছেন। এ নিয়ে সরগরম গোটা ক্রিকেটাঙ্গন।

তবে এমন মন্তব্য নিয়ে কোনো অনুতাপ নেই সাকিবের। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার আরেকটি সাক্ষাৎকারে বলেছেন, কথায় কথায় প্রসঙ্গ এসেছে, যা ঠিক মনে করেন বলে দিয়েছেন।

রোববার (২১ মার্চ) রাতে বাংলাদেশের এক ক্রীড়া সাংবাদিককে দীর্ঘ সাক্ষাৎকার দিয়েছেন সাকিব। উৎপলের ব্যক্তিগত ওয়েবসাইটে সেই সাক্ষাৎকার প্রকাশ করা হয়েছে।

‘আমি প্ল্যান করে কিছু বলি না। যা মনে আসে, তা-ই বলি। যা বিশ্বা'স করি, তা-ই বলি,’ মন্তব্য করে সাকিব বলেন, ‘যা ঠিক মনে করি, বলে দিয়েছি। ’

এর প্রতিক্রিয়া কী 'হতে পারে সেই ভাবনাও সাকিবের মনে আসেনি, ‘কী প্রতিক্রিয়া হবে, এ নিয়ে ভাবি না। আমি চিন্তা করলে বড় চিন্তা করি। আচ্ছা আপনিই বলেন, আমি যা বলেছি, তাতে কি আমার নিজের কোনো লাভ আছে? নিজের লাভ তো গাধাও বোঝে। আমি ক্রিকে'টের বৃ'হত্তর স্বার্থে কথাগু'লো বলেছি। কারও যখন বলার সাহস নাই, আমিই না হয় বললাম।’

তিনি বলেন, ‘আমার ব্যক্তিগত লাভের জন্য তো বলি নাই। কেউ যদি এটা ভালোভাবে নিতে চায়, তা ক্রিকে'টের জন্য ভালো হবে। আমর'া যদি ভালো করতে চাই, বাংলাদেশের ক্রিকে'টের উন্নতি চাই, তাহলে তো আমি আমার কথায় কোনো সমস্যা দেখি না। ’

এসময় এক প্রশ্নের উত্তরে সাকিব বলেন, আমি চিন্তিত না। আমার মনে হয় না, আমি খারাপ কিছু বলেছি। এটা আসলে কে কীভাবে নেয়, তার ওপর। ভালোভাবে নিলে ভালো, আর কেউ যদি ইস্যু তৈরি করতে চায়, তাহলে ভিন্ন কথা।

কেউ যদি আমার ২টা/৩টা প্রবলেমের কথা বলেন, আমি তা নিয়ে চিন্তা করব। ঠিক মনে হলে শোধ’রানোর চে'ষ্টা করব। আমার ছুটি নেওয়া নিয়ে কেউ একটার পর একটা ইন্টারভিউ দিয়ে যেতে পারবেন, আর আমি আমার কথাটা বলতে পারব না?