মায়ের ওপর অভি’মান করে শিশুর আ’ত্মহ’ত্যা

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় মায়ের ওপর অভিমান করে রাব্বি হোসেন (১২) নামের এক শিশু আত্মহ'ত্যা করেছে। সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপা'তালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃ'ত্যু হয় তার। নি'হত শিশু রাব্বি আলমডাঙ্গার রুইথনপুর পূর্বপাড়ার কৃষক মিজানুর রহমানের ছেলে। চাল ভাজা খাওয়াকে কেন্দ্র করে মায়ের ওপর অভিমান করে সে আত্মহ'ত্যা করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, সোমবার 'বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে খেলা শেষে বাড়ি এসে মায়ের কাছে চালভাজা খেতে চায় রাব্বি। হাতে কাজ থাকায় চাল ভাজতে অ'স্বীকৃতি জানান তার মা। তখন সে জিদ করলে তাকে বকা দেন তিনি। পরে মায়ের ওপর অভিমান করে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় রাব্বি।

নি'হত রাব্বির বাবা মিজানুর রহমান জানান, সন্ধ্যায় বাড়ি না ফিরলে তাকে অনেক খোঁজাখুঁজি করে পরিবার। পরে বাগানের একটি গাছে থেকে গলায় গামছা পেঁচানো অবস্থায় তার লা'শ পাওয়া যায়। সেখান থেকে লা'শ উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপা'তালে নেয়া হয়।

রাব্বির অবস্থা আশ'ঙ্কাজনক হওয়ায় জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপা'তালে রেফার করেন। তাকে রাজশাহী নেয়ার প্রস্তুতি নেয়ার সময় রাত ১২টার দিকে মা'রা যায় সে।

হাসপা'তালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত ডা. জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, শিশু রাব্বির অবস্থা আশ'ঙ্কাজনক ছিল। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপা'তালে নেয়ার পরার্মশ দেই। কিন্তু সেখানে নেয়ার আগেই মা'রা যায় শিশুটি।

এ বিষয়ে আলমডাঙ্গা থা'নার ভারপ্রা'প্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর কবীর জানান, চালভাজা খাওয়াকে কেন্দ্র করে রাব্বি নামের ওই শিশুটি তার মায়ের ওপর অভিমান করে গলায় গামছা পেঁচিয়ে আত্মহ'ত্যার চেষ্টা করে। পরে সদর হাসপা'তালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতেই মা'রা যায় সে।

তিনি আরও জানান, আবেদনের প্রেক্ষিতে নি'হত শিশুটির মর'দেহ ময়নাতদ'ন্ত ছাড়াই পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ওই ঘটনায় থা'নায় একটি অ’পমৃ'ত্যুর মাম'লা হয়েছে।