শেখর ধাওয়ান-স্মিথদের পিছনে ফেলে আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে মুশফিকের উন্নতি

সাম্প্রতিক ওডিআই রাঙ্কিং ব্যাটিংয়ে ৮৬৫ স্কোর নিয়ে সেরার অবস্থানে আছেন পাকিস্তানের বাবর আজম। এরপরেই ৮৫৭ স্কোর নিয়ে ভিরাট কোহলি ও ৮২৫ স্কোর নিয়ে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান দখল করেছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। চতুর্থ ও পঞ্চম তালিকায় আছে যথাক্রেমে অস্ট্রেলিয়ান অ্যারন ফিঞ্চ এবং নিউজিল্যান্ডের রস টেইলর।

ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের মধ্যে সেরার অবস্থানে আছে মুশফিকুর রহিম। তিনি ১৪ নম্বর অবস্থানে আছেন। শেখর ধাওয়ান ১৮ নম্বরে। স্মিথ ১৬ নম্বরে অবস্থান করছেন।

বোলিংয়ের ক্ষেত্রে ৭২৭ স্কোর নিয়ে শীর্ষে আছেন কিউই পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। এরপরের সেরা চারটি অবস্থানে আছে যথাক্রমে আফগানিস্তানের মুজিব-উর-রহমান, নিউজিল্যান্ডে ম্যাট হেনরি, ভারতের জাসপ্রিত বুমরাহ এবং বাংলাদেশের মেহেদি হাসান মিরাজ। বাংলাদেশ থেকে ১৬তম অবস্থানে আছে সাকিব এবং ১৮তম অবস্থানে আছে কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান।

এক বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে এসে আবারও বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের তকমা নিজের দখলে নিলেন টাইগার সাকিব আল হাসান
একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে (ওডিআই) ব্যাটিং, বোলিং এবং অলরাউন্ডার ক্যাটাগরিতে আইসিসির শীর্ষ স্থান দখল করেছে যথাক্রমে বাবর আজম, ট্রেন্ট বোল্ট এবং বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান।

পাকিস্তানি অধিনায়ক বাবর আজম গত কয়েক বছরে ওডিআই ফরম্যাটে দারুণ খেললেও র‌্যাংকিং এর শীর্ষ স্থানটি নিজের দখলে নিতে পারছিলেন না। কিন্তু এবার ভিরাট কোহলিকে টোপকে শীর্ষ স্থান বাগিয়ে নিলেন এই ক্রিকেটার।

অন্যদিকে বোলিংয়ের ক্ষেত্রে কিউই বোলার ট্রেন্ট বোল্ট সেরা বোলারদের একজন। আর আইসিসি র‌্যাংকিং যথাযথ বিচারই করেছে তার নামের প্রতি। অপরদিকে, দীর্ঘ এক বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে এসে আবারও বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের তকমা নিজের দখলে নিলেন টাইগার সাকিব আল হাসান।

অলরাউন্ডারদের তালিকার শীর্ষ স্থানকে আবারও নিজের নামেই লিখিয়েছেন সাকিব। তার স্কোর ৪০৮। এরপরে শীর্ষ চার অবস্থানে আছেন যথাক্রমে ইংল্যান্ডের বেন স্টোকস্, আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবী, ইংল্যান্ডে ক্রিস ওয়েক্স এবং আফগান তারকা রশীদ খান। বাংলাদেশের মেহেদি হাসান মিরাজ এই তালিকার ২০ নাম্বারে অবস্থান করছেন।