বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে দারুণ জয় যুবাদের

বিশ্বকাপের মূল আসর শুরুর আগে একটিই প্রস্তুতি ম্যাচ। সুযোগটা শতভাগ কাজে লাগালো বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। জিম্বাবুয়েকে উড়িয়ে দিয়ে দারুণ প্রস্তুতি সেরেছে যুবারা।

সেন্ট কিটসে মঙ্গলবার জিম্বাবুয়ের যুবাদের বিপক্ষে ডাকওয়ার্থ-লুইস (ডিএল) পদ্ধতিতে ১৫৫ রানের বিশাল জয় পেয়েছে রাকিবুল হাসানের দল।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের এক বল বাকি থাকতে বাংলাদেশ অলআউট হয় ২৭৭ রানে। ডিএল পদ্ধতিতে পরে জিম্বাবুয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৫৬। লক্ষ্য তাড়ার চেষ্টাটাও করতে পারেনি তারা। টাইগার যুবাদের বোলিং তোপে ১১০ রানেই থামে ইনিংস।

বাংলাদেশের অবশ্য শুরুটা ভালো ছিল না। ওপেনার আরিফুল ইসলাম (১) আর ওয়ান ডাউন প্রান্তিক নওরোজ নাবিল (১০) ফিরে যান দলের খাতায় ২৩ রান উঠতেই। আরিফুল স্লিপে ক্যাচ, নাবিল হন দুর্ভাগ্যজনক ‘অবস্ট্রাক্টিং দ্য ফিল্ড’ আউট।

সেখান থেকে তৃতীয় উইকেটে আরিফুল ইসলাম ও আইচ মোল্লার ৫১ রানের জুটি। ওপেনার আরিফুল ৪০ রানে বিদায় নিলে ভাঙে এই জুটি। এরপর উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ ফাহিমকে নিয়ে আরেকটি বড় জুটি গড়েন আইচ। এই জুটিতে ৭৯ বলে আসে ৮১ রান।

ফাহিম আউট হন ৩৮ বলে ৩৩ করে। তবে সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন আইচ মোল্লা। দারুণ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলছিলেন। যদিও তিন অংক ছোঁয়া হয়নি। ৫ বাউন্ডারি ও ৩ ছক্কায় ৮২ বলে ৮২ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলে আইচ ক্যাচ আউট হন।

আইচ ফেরার পর দ্রুত আরও কয়েকটি উইকেট হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। ৪ উইকেটে ১৮৩ থেকে আর ১৭ রান যোগ করতেই উইকেট খোয়ায় চারটি। লড়াকু স্কোর গড়ার সম্ভাবনা ধাক্কা খেয়েছিল।

তবে অধিনায়ক রাকিবুল হাসান আর লোয়ার অর্ডারের রিপন মন্ডলের কার্যকর দুটি ইনিংসে বড় স্কোর পেয়ে যায় যুবা টাইগাররা। নবম উইকেটে তারা গড়েন ৭৪ রানের জুটি।

৪৫ বলে ৩ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় ৩৬ করেন রাকিবুল। দশে নেমে রিপন ২৫ বলে খেলেন ৩৯ রানের ঝড়ো ইনিংস, যে ইনিংসে ৪টি চারের সঙ্গে ছিল একটি ছক্কার মার।

রান তাড়ায় নেমে লড়াইটাও করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। তিন নম্বরে নামা স্টিভেন সাউলের ৩৯-ই দলীয় সর্বোচ্চ। বাকিদের কেউ পঁচিশের ঘরও ছুঁতে পারেননি।

বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল নাইমুর রহমান, ১৮ রানে নেন ৩টি উইকেট। দুটি করে উইকেট শিকার আরিফুল ইসলাম আর আবদুল্লাহ আল মামুনের।

বিশ্বকাপে যুবাদের শিরোপা ধরে রাখার মিশন শুরু হবে আগামী রোববার। গ্রুপে প্রথম ম্যাচ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেন্ট কিটসে। বাকি দুই প্রতিপক্ষ কানাডা ও সংযুক্ত আরব আমিরাত।