বিয়েতে রাজি না হওয়ায় তিন হাজার গাছ কেটে দিয়েছে কিষানির!

বিয়েতে রাজি না হওয়ায় এক কিষানির প্রায় তিন হাজার সবজি গাছ কে’টে ফেলা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজে’লার আশিদ্রোন ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের পাড়ের টং গ্রামে। সবজির ভরা মৌসুমে ফলসহ গাছগু’লো কে’টে ফেলায় নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন কিষানি জাহেরা খাতুন।

রাতের আঁধারে তার চাষ করা ৩ একর জমির গাছগু’লো কে’টে এবং উপড়ে ফেলে দেয়ার অ’ভিযোগ উঠেছে বানিয়াচং উপজে’লার গু’নই গ্রামের আনোয়ার আলী, পাড়ের টংয়ের ইনচার আলী ও কাদির মিয়ার বি’রু’দ্ধে।

জানা গেছে, ওই কৃষানির জমিতে প্রায় তিন হাজার করলা, শশা, চালকুমড়া, চিচিঙ্গাসহ বিভিন্ন সবজি গাছ লাগানো ছিল। এগু’লোতে ফল ও ফুল দুটোই ধরেছিল। কিন্তু এখন সব মাটিতে পড়ে রয়েছে। গাছের গোড়া কে’টে এবং উপড়ে ফেলে দিয়েছেন অ’ভিযু’ক্তরা।

এ বি’ষয়ে জাহেরা খাতুন বলেন, ঋণ নিয়ে তিন একর জমিতে তিনি চাষ শুরু করেন। রাতের আঁধারে ক্ষেতের ফসল কে’টে ফেলায় এখন তিনি পরিবার নিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন।তিনি অ’ভিযোগ করে বলেন, আনোয়ার আলী, ইনচার আলী ও কাদির মিয়া মঙ্গলবার রাতে তার ক্ষেত ন’ষ্ট করেছে। এতে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষ’তি হয়েছে।

বুধবার শ্রীমঙ্গল থা’নায় এ বি’ষয়ে একটি লিখিত অ’ভিযোগ দায়ের করেছেন বলেও তিনি জানান।

স্থানীয় ইউপি সদস্য বিল্লাল হোসেন ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী সদস্য শিল্পী পাল বলেন, আনোয়ার মিয়ার স্ত্রী মা’রা গেলে তিনি জাহেরা খাতুনকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। কিন্তু জাহেরা খাতুন রাজি হননি। আনোয়ার মিয়া ক্ষু’ব্ধ হয়ে এ কাজ করে থাকতে পারেন। এ বি’ষয়ে অ’ভিযু’ক্ত আনোয়ার আলীর সঙ্গে যোগাযোগের চে’ষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি।