মালিকের প্রা’ণ কে’ড়ে নিল মোরগ, নেয়া হলো থা’নায়

বিশ্বের অনেক অঞ্চলেই মোরগলড়াই বেশ জনপ্রিয়। তবে সেই মোরগলড়াইয়ে এবার ভারতের তেলেঙ্গনা রাজ্যে প্রাণ গেল এক মালিকের। লড়াইয়ের জন্য মোরগের পায়ে বাঁধা ছু'রির আঘা'তে প্রাণ হারিয়েছেন তিনি। তেলেঙ্গনা রাজ্যের লথুনুর গ্রামে চলতি স'প্ত াহের শুরু দিকে এ দু'র্ঘটনা ঘটে। খবর বিবিসির।

পুলিশ জানিয়েছে, লড়াইয়ের জন্য ‘ঘা'তক’ মোরগটিকে প্রস্তুত করছিলেন মালিক। কিন্তু হঠাৎ মোরগটি পালানোর চে'ষ্টা করে। এসময় এটিকে ধরতে যান মালিক। কিন্তু অ'সাবধানতাবসত মোরগের পায়ে বাঁধা ৭ সেন্টিমিটারের ( ৩ ইঞ্চি) ধা'রালো ছু'রিতে আঘা'ত পান মালিক। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃ'ত্যু হয়। অতিরিক্ত র'ক্তক্ষরণে তার মৃ'ত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় সংশ্লি'ষ্টদের বিরু'দ্ধে হ'ত্যাকাণ্ড, অবৈধ বাজি এবং মোরগলড়াই আয়োজনের অ'ভিযোগ আনা হবে। পুলিশ ইতোমধ্যে ঘটনায় সংশ্লি'ষ্ট ১৫ জনকে খুঁজছে।

যে মোরগের পায়ে বাঁধা ছু'রির আঘা'তে মালিকের মৃ'ত্যু হয়েছে সেটিকে একটি খামা'রে রাখা হয়েছে। এর আগে এটিকে পুলিশ স্টেশনে নেয়া হয়। প্রমাণ হিসেবে মোরগটিকে পরে আ'দালতে নেয়া 'হতে পারে বলে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মক'র্তা বি জেভান।

ভারতে মোরগলড়াই নি'ষি'দ্ধ করে হয়েছে ১৯৬০ সালে। তবে এরপরও দেশটির বিভিন্ন এলাকায় মোরগলড়াইয়ের আয়োজন সাধারণ ঘটনা। বিশেষ করে সংক্রা'ন্তি উৎসবে মোরগলড়াই আয়োজন ভারতে বেশ জনপ্রিয়।

তবে মোরগের হাতে মালিকের প্রাণহা’নির ঘটনা এটিই প্রথম নয়। গতবছর অন্ধ্রপ্রদেশে মোরগের পায়ে বাঁধা ব্লে'ডের আঘা'তে প্রাণ হারান এক মালিক।