ব্যবসার পরিকল্পনাই কাল হলো ৫ বন্ধুর

কোরবানির মৌসুমে গরু ব্যবসার পরিকল্পনাই কাল হলো পাঁচ বন্ধুর। চট্টগ্রাম থেকে প্রাইভেট কারযোগে গরু কিনতে যাওয়ার পথে যশোরে ট্রাকচাপায় নিহত হন চার বন্ধু। অপরজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

এ ছাড়া টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে ট্রাকচালক, বরিশালের মুলাদীতে একজন, বরগুনার আমতলীতে শিশু, রংপুরের মিঠাপুকুরে অন্তঃসত্ত্বা নারীসহ দুজন, চট্টগ্রামে মোটরসাইকেল আরোহী, মানিকগঞ্জের সিংগাইরে দুজন এবং ময়মনসিংহের ভালুকায় ফকলিফট চালক নিহত হয়েছেন। ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

যশোর ও চট্টগ্রাম : তাদের কেউই পেশাদার গরু ব্যবসায়ী নন। তবে এ বছর কোরবানির মৌসুম সামনে রেখে পাঁচ বন্ধু বেনাপোল থেকে গরু কিনে চট্টগ্রামে এনে বিক্রির পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু কে জানত, এই পরিকল্পনাই ইতি টানবে তাদের জীবনের। চট্টগ্রাম থেকে যশোরের বেনাপোল যাওয়ার পথে ঘাতক ট্রাক কেড়ে নিয়েছে চারজনের প্রাণ। যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের মালঞ্চী এলাকায় রোববার দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন চট্টগ্রামের কুলগাঁও এলাকার ইকবাল চৌধুরীর ছেলে শিক্ষানবিশ আইনজীবী রাছাম চৌধুরী সাদমন (২৬), চট্টগ্রাম নগরীর পাঁচলাইশ এলাকার ইয়াকুব বাদশার ছেলে আবু সৈয়দ (৩৫), পাঁচলাইশ ওয়াজেদিয়া এলাকার মোহাম্মদ ইসমাইলের ছেলে নাঈম উদ্দীন (৩২) ও চান্দগাঁও এলাকার আলী আজগরের ছেলে আলী নেওয়াজ জনি (৩৫)। আহতের নাম মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন, তার বাড়িও কুলগাঁও এলাকায়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, পাঁচজনই ছিল ঘনিষ্ঠ বন্ধু। তাদের বাড়িও কাছাকাছি এলাকায়। সাদমানের বাবা চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ইকবাল চৌধুরী জানান, নাঈমের প্রাইভেট কারযোগে শনিবার রাত সাড়ে ১০টায় পাঁচ বন্ধু রওনা হয়। তারা নিজেরাই গাড়ি চালাচ্ছিল। কান্নাজড়িত কণ্ঠে ইকবাল চৌধুরী বলেন, সেই যে ছেলে গেল, আর ফিরল না। নাঈমের মামা মো. আইয়ুব জানান, নাঈম ও আবু সৈয়দ আপন মামাতো-ফুফাতো ভাই। নয়ারহাট এলাকায় দুজনেরই শেয়ারে কাপড় ও টেইলারিং ব্যবসা রয়েছে। একই সঙ্গে পরিবারের দুই সদস্যকে হারিয়ে স্বজনরা পাগলপ্রায়। আমি যতদূর জানতে পেরেছি, পাঁচ বন্ধু ৩২ লাখ টাকা নিয়ে গরু কিনতে গিয়েছিল।

কালিহাতী (টাঙ্গাইল) : ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে ট্রাক ও পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত রমজান আলী (২৫) ময়মনসিংহের গৌরীপুরের বাসিন্দা। দুর্ঘটনায় হেলপার আহত হয়েছেন। উপজেলার পাথাইলকান্দিতে রোববার এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মুলাদী (বরিশাল) : মুলাদীতে ব্যাটারিচালিত ভ্যান ও মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে নিহত আ. মন্নান আকন (৫০) হিজলা উপজেলার মাউলতলা গ্রামের বাসিন্দা। পৌরসভার চরডিক্রি মোল্লা ব্রিজ এলাকায় শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আমতলী (বরগুনা) : আমতলী-পটুয়াখালী মহাসড়কের আমড়াগাছিয়া বাজারে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ গেল চার বছরের শিশু আব্দুল্লাহর। রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। শিশুটি তার বাবা হাবিবুর রহমান গাজীর সঙ্গে আমড়াগাছিয়া বাজারে যায়। বাবার হাত ধরে ললিপপ খেতে খেতে সে আমতলী-পটুয়াখালী মহাসড়ক পার হওয়ার উদ্দেশে দৌড় দেয়। এ সময় বাসটি তাকে চাপা দিলে সে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।

রংপুর : মিঠাপুকুরে ট্রাক্টরচাপায় এক অন্তঃসত্ত্বা নারীসহ অটোবাইক চালক নিহত হয়েছেন। হাসিনা পারভিন (৩০) নামে ওই নারী রংপুরের একটি আন্তর্জাতিক শিল্প প্রতিষ্ঠানের কর্মী ছিলেন। রোববার দুপুরে মিঠাপুকুর-ফুলবাড়ি আঞ্চলিক মহাসড়কের মোসলেম বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত অটোচালকের নাম ওবায়দুল ইসলাম (৩৫)।

চট্টগ্রাম : নগরীর পাঁচলাইশ থানার মুরাদপুর মোড় এলাকায় রোববার বিকালে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় নিহত মোটরসাইকেল আরোহীর নাম মো. আবদুস সালাম (৫১)। তিনি হাটহাজারী উপজেলার চিকনদন্ডী ইউনিয়নের খন্দকিয়া গ্রামের জানে আলমের ছেলে।

সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) : হেমায়েতপুর-সিংগাইর-মানিকগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজন নিহত ও চারজন আহত হয়েছেন। রোববার সিংগাইর পৌর এলাকার আজিমপুর ব্রিজের কাছে প্রাইভেট কার-লরির সংঘর্ষে নিহত ইসমাঈল মৃধা (৪৫)। তার বাড়ি ফরিদপুর জেলার মধুখালী উপজেলার ধোপাগাতী গ্রামে। এ ছাড়া বায়রা ইউনিয়নের বাইমাইল খোলাপাড়ায় প্রাইভেট কারের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হন ভ্যানচালক মো. সেন্টু মিয়া (৩০)। তিনি মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার হাটিপাড়া গ্রামের মোকসেদ আলীর ছেলে।

ভালুকা (ময়মনসিংহ) : ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ভালুকার মেহরাবাড়িতে রোববার ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ফকলিফট চালক শফিকুল ইসলাম (৩০) কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার বাসিন্দা। দুর্ঘটনায় দুজন আহত হয়েছেন।