আমরা তো বালতির পানি খেয়ে বড় হয়েছি: সুজন

সম্প্রতি সাকিব আল হাসান ও মাশরাফি বিন মুর্তজা সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজনের কাজের খুব প্রশংসা করেছেন। তারা বলেছেন, বর্তমানে ক্রিকেট বোর্ডে সবচেয়ে কর্মঠ ও প্রশংসনীয় কাজের মানুষ হলেন সুজন।

মাশরাফি-সাকিবরা সুজনের প্রশংসা করলেও ক্রিকেট মহলে তাকে নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়। জাতীয় দলের ম্যানেজার হিসেবে বিদেশ সফরে গিয়ে ক্যাসিনো কাণ্ডে বিতর্কের সৃ'ষ্টি করেন সুজন। শুধু তাই নয়, একই ব্যক্তি ক্রিকেট বোর্ডের একাধিক চেয়ার দখল করে আছেন।

এসব সমালোচনা প্রসঙ্গে সম্প্রতি একটি অনলাইন পোর্টালকে দেয়া সাক্ষাৎকারে সুজন বলেন, আমি জানি আমাকে নিয়ে কী লেখালেখি হয়। যদিও আমি ফেসবুক তেমন ব্যবহার করি না। তবে সবাই আমাকে স্ক্রিনশট পাঠায়। জানি যে ফেসবুকে আমাকে নিয়ে অনেক 'ট্রল করা হয়।

জাতীয় দলের হয়ে ৭৭ ওয়ানডে আর ১২টি টেস্ট ম্যাচে অংশ নিয়ে বল হাতে ৮০ উইকেট আর ব্যাট হাতে এক ফিফটির সাহায্যে ১ হাজার ২৫৭ রান সংগ্রহ করা সুজন আরও বলেন, এখন যদি আপনি আমাকে সাইফউদ্দিনের সাথে তুলনা করেন, তাহলে তো ফেয়ার হবে না।

আমা'দের সময় এই ট্রেইনার, ফিজিও, বোলিং কোচ, পাওয়ার ড্রিংক, এনার্জি ড্রিংক; এত কিছু ছিল না।

আমর'া তো বালতির পানি খেয়ে বড় হয়েছি। আমা'দের সময় জানতামও না যে জিম কী! জিম কীভাবে করতে হয়।