কন্যাসন্তান হওয়ায় স্ত্রী-শ্বশুর-শাশুড়িকে ঘরবন্দি করে পেটালেন জামাই

কক্সবাজারের রামুতে দ্বিতীয়বার কন্যাসন্তান জন্ম দেওয়ায় এবং যৌ'’তুকের দাবি পূরণ করতে না পারায় স্ত্রী ও নবজাতক সন্তানসহ শ্বশুর-শাশুড়িকে মা’রধ’রের অ’ভিযো’গ উঠেছে আবু তাহের (২৮) নামে এক ব‌্যক্তির বিরু’'দ্ধে।আবু তাহের রামু উপজে’লার খু'নিয়াপালং ইউনিয়নের ধোয়াপালং নয়াপাড়ার বাসি'ন্দা জাফর আলমের ছেলে।

এ ঘটনায় গত সোমবার (২৯ মা'র্চ) বাদী হয়ে স্বামী ও শ্বশুরকে আসা’মি করে রামু থা'নায় অ’ভিযো’গ দা’য়ে’র করেছেন গৃহবধূ রাশেদা বেগম। ভূ’ক্ত’ভো’গী গৃহবধূ রাশেদা বেগম টেকনাফ পৌরসভার অলিয়াবাদ এলাকার গিয়াস উদ্দিনের মেয়ে।

রাশেদা বেগম জানান, পাঁচ বছর আগে তার সঙ্গে সামাজিকভাবে আবু তাহেরের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে সাড়ে তিন বছর বয়সী ও ১০ দিন বয়সী দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। প্রথম কন্যাসন্তান জন্মের ২/৩ বছর পর থেকে স্বামী আবু তাহের যৌ'’তু’ক হিসেবে বাবার বাড়ি থেকে এক লাখ টাকা এনে দেওয়ার জন্য তাকে চা’প দিয়ে আসছিল। এ নিয়ে তাকে শা’রী’রিক নি”র্যা’ত’ন’ও চালায় আবু তাহের। গত ১৯ মা'র্চ তাদের দ্বিতীয় কন্যাসন্তানের জন্ম হয়।

দ্বিতীয়বার কন্যাসন্তান জন্ম হওয়ায় গত রোববার (২৮ মা'র্চ) দুপুরে রাশেদাসহ তার বাবা-মাকে মা”রধ’র করে আবু তাহের। এতে নবজাতক সন্তানও আ’হ’ত হয়। পরে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে গতকাল মঙ্গলবার (৩০ মা'র্চ) চিকিৎসা শেষে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

রাশেদা বেগম বলেন, ‘দ্বিতীয়বার কন্যাসন্তান জন্ম নেওয়ায় স্বামী ও শ্বশুর আমাকে দা’য়ি করে। শ্বশুরের ইন্ধনে ও উ”স্কা’নিতে আমা'র স্বামী নি”র্যা’ত’ন করে।’

রাশেদার বাবা গিয়াস উদ্দিন বলেন, ‘যৌ'’তু’কের দাবিতে আমা'র মেয়ের ওপর আবু তাহের দীর্ঘদিন ধরে নি”র্যাত’ন চালিয়ে আসছিল। কিছুদিন আগে আরেকটি কন্যাসন্তান জন্ম দেওয়ায় আবারও মা’রধ’র করে। খবর পেয়ে আমা'র স্ত্রী মেয়েকে দেখতে যায়। এতে ক্ষু’ব্ধ হয়ে আমা'র স্ত্রী ও মেয়েকে মা”রধ’র করে জামাই তাহের।

গত রোববার (২৮ মা'র্চ) মেয়ের শ্বশুর বাড়ি গেলে আমাকেসহ সবাইকে আরেক দফা মা”রধ’র করে ঘরে আট'কে রাখে আবু তাহের। পরে আমা'রদের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এসে উ”'দ্ধা’র করে।’

এদিকে তার বি’রু’'দ্ধে আ’না অ’ভিযো’গ সত্য নয় দাবি করে আবু তাহের বলেন, ‘যৌ'’তু’কে’র দা’বি এবং কন্যাসন্তান জন্ম নেওয়ায় স্ত্রীসহ শ্বশুর-শ্বাশুড়িকে মা’রধ’র করার অ’ভিযো’গ স’ত্য নয়। আমা'র স্ত্রী এখনও বাপের বাড়ি টেকনাফের ঠিকানায় ভোটার।

কয়েকদিন আগে জাতীয় পরিচয়পত্রের স্মা'র্টকার্ড বিতরণ উপলক্ষে বাপের বাড়ি যেতে না দেওয়ায় স্ত্রীসহ শ্বশুর-শ্বাশুড়ির সঙ্গে মতবি’রো’ধ দেখা দেয়। এ নিয়ে আমা'র বাবার সঙ্গে শ্বশুর-শ্বাশুড়ির বা’ক-বিত’ণ্ডা হয়। সেই ঘটনাকে ভিন্নভাবে ঘুরিয়ে আমা'র বি’রু’'দ্ধে অ”ভিযো’গ তোলা হচ্ছে।’

রামু থা'নার ভারপ্রা'প্ত কর্মক'র্তা (ওসি) মোহাম্ম'দ আজমিরুজ্জামান বলেন, ‘ঘটনায় ভূ”ক্তভো’গী নারী বা’দী হয়ে থা'নায় একটি অ’ভিযো’গ দা’য়ের করেছেন। প্রাথমিক তদ’ন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। ঘটনাটি স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দাম্প’ত্য কলহ নিয়ে। বি'ষয়টি সামাজিকভাবে মী’মাং’সা করার ব‌্যাপারে পরামর'্শ দেওয়া হয়েছে।’ আজমিরুজ্জামান জানান, যেহেতু পুলিশ প্রাথমিক তদ’ন্তে ঘটনার সত্যতা পেয়েছে। এতে বাদী সম্মতি প্রকাশ করলে মা’ম'লা ন’থিভূ’ক্ত করা হবে।