মৃত্যুর আগেই আড়াইহাজার গ্রামবাসীকে খাওয়ালেন ৮০ বছরের বৃদ্ধ

সাধারণত মুসলিম ধর্মের কোনো মানুষের মৃ'ত্যুর পর মিলাদ বা কুলখানির আয়োজন করেন স্বজনরা। কিন্তু জীবিত থেকে নিজের জিয়াফত নিজেই আয়োজন করলেন ৮০ বছরের বৃদ্ধ হাজি মো. আবুল কাশেম মোল্যা।

শনিবার (১৩ মার্চ) নিজ বাড়ির আঙ্গিনায় আয়োজন করে গ্রামের ২ হাজার ৫০০ মানুষকে দাওয়াত করে খাওয়ান তিনি। বৃদ্ধ আবুল কাশেমের বাড়ি ফরিদপুর জে’লার বোয়ালমারী উপজে’লার রূপাপাত ইউনিয়নের কুমর'াইল গ্রামে। গতকাল শুক্রবার রাত থেকে শুরু হয় গরু জ’বাইসহ রান্নাবান্নার কাজ। শনিবার দুপুর ১২টায় মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

মিলাদে অংশ নেন মসজিদের ইমাম। মোনাজাতের পর শুরু হয় খাওয়া-দাওয়া, চলে 'বিকেল ৫টা পর্যন্ত। আমন্ত্রিত অতিথিদের আপ্যায়নের ব্যয়ভার বহন করেন তিনি নিজেই।

হাজি মো. আবুল কাশেম মোল্যার চার ছেলে ও তিন মেয়ে। ছেলেদের বউ ও নাতি-নাতনিদের নিয়ে বাড়িতে থাকেন। আগেই ছেলে-মেয়েদের মাঝে সম্পত্তি ভাগ করে দেন তিনি।

আবুল কাশেম মোল্যা বলেন, মৃ'ত্যুর আগেই প্রতিবেশী ও আশপাশের গ্রামের মানুষকে দাওয়াত করে খাওয়ানোর ইচ্ছা ছিল। অবশেষে সেই ইচ্ছা আল্লাহ পূরণ করেছেন।